For English Version
রবিবার, ২৫ জুলাই, ২০২১, রেজি: নং- ০৬
Advance Search
হোম জাতীয়

চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে হংকংয়ে আম রপ্তানি

Published : Wednesday, 14 July, 2021 at 8:25 PM Count : 186

স্বাধীনতার পর এবারই প্রথম চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে আম রপ্তানি হল হংকংয়ে। এতে করে আম রপ্তানির নতুন দ্বার উম্মোচন হল।

হংকংয়ে আমের প্রথম চালানটি পৌঁছে ১২ জুলাই বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৬টায়। এমটিবি অ্যাগ্রো এ্যান্ড গার্ডেন-এর স্বত্ত্বাধীকারী মো. মাহতাব আলী হংকংয়ের এক্সিয়াম রিসোর্স লিমিটেডের কাছে আমগুলি রপ্তানি করেন। 

আমদানি ও রপ্তানিকারকরা জানান, এর আগে হংকংয়ে কখনই আম রপ্তানি হয়নি। তবে হংকং হয়ে চলে গেছে অন্যদশে। এবারই প্রথম সরাসরি হংকংয়ে আম রপ্তানি হয়।

মাহতাব আলী জানান, চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার কনটাক্ট ফার্মার আহসান হাবিবের ম্যাংগো প্রজেক্টের আম্রপালি, ফজলি ও বারী ফোর আম নিয়ে সরবরাহ করি হংকংয়ে। এর আাগে দেশি কয়েকটি স্বনামধন্য শপিংমল, প্রতিষ্ঠিত ও উচ্চ পদস্থ ব্যাক্তিদের কাছে নিরাপদ ও স্বাস্থ্যসম্মত আম নিয়ে প্রতিটি আমে আমার প্রতিষ্ঠানের স্টিকার দিয়ে নতুনভাবে নিজস্ব প্যাকিংয়ে সরবরাহ করি। আমকে ব্রান্ডিং, আকর্ষণীয় ও উপহার প্রদানের উপযোগী বক্স করে সবচেয়ে উন্নত ও দৃষ্টিনন্দন প্যাকিং করছি। এ মৌসুমে দেশে ও বিদেশে আরো আম সরবরাহের জন্য বুকিং দেয়া আছে। 

তিনি আরো জানান, আম রপ্তানিতে দেশে তেমন নীতিমালা না থাকায় নিজেই হংকং সরকারের সংশিল্টষ্টদের সাথে বিভিন্নভাবে যোগাযোগ করি। এরপর রপ্তানির বিষয়ে যে নিয়মাবলী পাই তা দেশে পেতে একমাস সময় চলে গেছে। এটি একটা বড় সমস্যা দেশে নীতিমালা স্পস্টভাবে এক জায়গায় না থাকা ও কার্গো বিমানে লোডারদের স্মোথলি লোড না করার জন্য আম নষ্টের ঝুঁকি থাকে। আপাতত এ দুটি বড় সমস্যা বলে মনে হয়েছে। 

মাহতাব আলী জানান, হংকংয়ে আম রপ্তানি নীতিমাল অনুযায়ী বাংলাদেশ কৃষি গবেষনা কাউন্সিল (বিএআরসি )-এর পেস্টিসাইড এ্যানালাইটিক্যাল ল্যাবরেটরি কীটতত্ব বিভাগে আম পরীক্ষা করার পর হংকংয়ে সরবরাহ করি। আন্তর্জাতিক নিয়ম অনুযায়ী পচনশীল ফ্রেশ সবজি, ফলমূল রপ্তানিকারক দেশ এই সনদপত্র দিয়ে থাকে । রপ্তানিকৃত পণ্যে ক্ষতিকারক কিছু নাই তার জন্য এই সনদ। এই জন্য অত্যন্ত সংবেদনশীল ও ব্যায়বহুল  MRL ( Maximum Residue Level ) পরীক্ষা করতে হয়।  এই পরীক্ষা করে বোঝা যায় যে ব্যাবহৃত কীটনাশক বা সারের কোন প্রভাব ফসলে আছে কিনা এবং তা মানব দেহের জন্য ক্ষতিকারক কিনা।

আমচাষী, কন্টাক্ট ফার্মার ও গণমাধ্যমকর্মী আহসান হাবিব জানান, আমার প্রজেক্টের আম নিয়ে গত মাসে সুইডেনে জিআই পণ্য রিসাপাত, ল্যাংড়া ও আম্রপালি  আমের তিনটি বড় চালান আরেক রপ্তানিকারক সরবরাহ করেছে। এবার হংকংয়ে পাঠানোর জন্য বিমান বাহীনির সাবেক কর্মকর্তা মাহতাব আলী কয়েক দফায় আম নিয়েছেন এবং এ মৌসুমে ব্যানানা ও গৌড়মতি, বারী ফোর, ফজলি ও আম্রাপালি আরো আম নেবেন। ১৩ জুলাই মঙ্গলবার তিনি আরো বারী ফোর ব্যাগিং  ও আম্রপালি ব্রাগিং আম বেশ কিছু পরিমাণ অর্ডার দিয়েছেন দেশে ও বিদেশে সরবরাহের জন্য। 

শিবগঞ্জ উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. শরিফুল ইসলাম জানান, কন্টাক্ট ফার্মার আহসান হাবিব কয়েক দফায় বিদেশে রপ্তানির জন্য আম সরবরাহ করেছেন।

ম্যাংগো ফাউন্ডেশনের আহ্বায়ক ও মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল কুদ্দুস জানান, আম রপ্তানিতে কার্গোভাড়া কমানো এবং রপ্তানিকারকদের প্রণোদোনাসহ উৎপাদনকারীদের বীমার ব্যবস্থা করতে হবে। রপ্তানিসহ আমের ন্যায্য দাম ও সরবরাহে সমস্যা না থাকলে ক্ষতি কাটিয়ে উঠা সম্ভব ।
 
জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর জানায়, এ বছর আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় চাঁপাইনবাবগঞ্জে প্রায় ৩ লাখ মেট্রিক টন আম উৎপাদিত হবে। ন্যায্যমূল্যে আম বিক্রি হলে, এর বাজার মূল্য হবে প্রায় দুই হাজার কোটি টাকা। 

বৃহত্তর রাজশাহী সমিতি, ঢাকার সভাপতি প্রকৌশলী ও আওয়ামী লীগ নেতা মাহতাব উদ্দিন জানান, সরকার সারা বিশ্বে রাস্ট্র ও সরকার প্রধানদের ৪ টন করে আম উপহার দিবেন বলে অসমর্থিত সূত্র থেকে  শুনেছি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে দাবি জানাই, যদি এমন হয় তবে চাঁপাইনবাবগঞ্জের আম সরবরাহের।

তিনি আরো জানান ,মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী ও পশ্চিম বাংলা, ত্রিপুরা, মেঘালয়,মিজোরামসহ প্রতিবেশী রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের আম উপহার দিয়েছেন। আমরা আমের রাজধানীখ্যাত চাঁপাইনবাবগঞ্জবাসী খুব খুশি হয়েছি। আরো খুশি হতাম যদি আমাদের অন্য জাতের আম উপহার সামগ্রীর সাথে অন্তর্ভুক্ত হতো।

তিনি বলেন আম রপ্তানিতে আরো বেশি সরকারি সহযোগিতার প্রয়োজন। রপ্তানিবাজার ও বহুমুখী ব্যবহার নিশ্চিত করতে আশির দশকে গার্মেন্টস শিল্পে যেভাবে প্রণোদনা দেওয়া হয়েছিল, তেমনি আম রপ্তানিতে প্রণোদনা দেওয়া জরুরি। চাঁপাইনবগঞ্জের আম রপ্তানিযোগ্য প্যাকিং নিশ্চিতকরণ, সহানীয়ভাবে সঙ্গনিরোধ সনদের ব্যবস্থা, সহনীয়ভাবে ভ্যাপার হিট ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্টের সুযোগ তৈরি করা, আধুনিক পদ্ধতিতে উৎপাদনে সহজ শর্তে ঋণ প্রদান করতে হবে।

আম সংশ্লিস্ট ও উদ্ভিদতত্ত্ববিদরা জানান, বিদেশে বাংলাদেশি দূতাবাসগুলোর মাধ্যমে বাজার অনুসন্ধান করা, বাংলাদেশে অবস্থানকারী বিদেশি দূতাবাসের কর্মকর্তাদের আমের মৌসুমে আম উৎপাদনকারী জেলাগুলো পরিদর্শন করার ব্যবস্থা গ্রহণ করা, বিদেশি বিনিয়োগকারীদের দেশে আমন্ত্রণ জানিয়ে দেশীয় আম বাগান পরিদর্শন করানো, আম রপ্তানি করার জন্য প্যাকেজিং সামগ্রীর ওপর ভর্তুকি প্রদান করা, পরিবহন বিমানের ব্যবস্থা ও ভাড়ার হার সহনীয় রাখা, বিদেশে রপ্তানির জন্য শুল্ক না নেয়া, আমকে বিদেশে সম্প্রসারণ করার জন্য সরকারি পর্যায়ে উদ্যোগ গ্রহণ করা এবং  আম রপ্তানির জন্য একটি নীতিমালা তৈরি প্রথম কাজ।

-জেপি/এনএন


« PreviousNext »



সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
Editor : Iqbal Sobhan Chowdhury
Published by the Editor on behalf of the Observer Ltd. from Globe Printers, 24/A, New Eskaton Road, Ramna, Dhaka.
Editorial, News and Commercial Offices : Aziz Bhaban (2nd floor), 93, Motijheel C/A, Dhaka-1000. Phone :9586651-58. Fax: 9586659-60; Online: 9513959; Advertisemnet: 9513663
E-mail: [email protected], [email protected], [email protected], [email protected],   [ABOUT US]     [CONTACT US]   [AD RATE]   Developed & Maintenance by i2soft