For English Version
সোমবার, ২১ জুন, ২০২১, রেজি: নং- ০৬
Advance Search
হোম Don't Miss

জোড়া লাগানো যমজ শিশুর জন্ম

Published : Thursday, 3 June, 2021 at 9:22 PM Count : 142

বরিশাল জেলার গৌরনদী উপজেলার সদরের একটি বেসরকারি ক্লিনিকে এক গৃহবধূ অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে জোড়া লাগানো যমজ কন্যাসন্তানের জন্ম দিয়েছেন।

বুধবার (২ জুন) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে যমজ দুই নবজাতকের জন্ম হয়। জন্মের পর থেকেই নবজাতক দুটির শারীরিক ত্রুট থাকায় চিকিৎসকেরা উন্নত চিকিৎসার পরামর্শ দেন। কিন্তু দরিদ্র ভ্যানচালক বাবার পক্ষে সেটা সম্ভব হয়নি। কোনো উপায় না পেয়ে ওই দুই নবজাতককে বিকেলে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। শিশু দুটি বর্তমানে হাসপাতালের শিশু মেডিসিন ওয়ার্ডের দ্বিতীয় ইউনিটে চিকিৎসকদের পর্যবেক্ষণে রয়েছে। তবে তাদের মা গৌরনদীর ক্লিনিকেই আছেন।
 
বরিশালের মুলাদী উপজেলার বাটামারা ইউনিয়নের সেলিমপুর গ্রামের মো. আবু জাফরের স্ত্রী হালিমা বেগম এই যমজ শিশুর জন্ম দেন। তার স্বামী মো. আবু জাফর পেশায় ভ্যানচালক। এই দম্পতির ৬ বছর ও ৪ বছরের আরও দুটি কন্যাসন্তান রয়েছে।

ভ্যান চালক মো. আবু জাফর জানান, তিনি গ্রামে থাকেন না। পুরান ঢাকায় তিনি ভ্যান চালান। তার স্ত্রী দুই কন্যাসন্তান নিয়ে গ্রামের বাড়ি থাকেন। সন্তান সম্ভবা হওয়ায় গত দেড় মাস আগে তার স্ত্রী ও দুই কন্যাকে শশুরবাড়ি মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলার রমজানপুর গ্রামে রেখে আসেন। বুধবার ভোরে স্ত্রীর প্রসব ব্যথা শুরু হলে তাকে পার্শ্ববর্তী গৌরনদীর ময়ুরী ক্লিনিকে ভর্তি করেন স্বজনরা। সেখানেই অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে এই জোড়া লাগানো যমজ নবজাতকের জন্ম হয়।
 
আবু জাফর বলেন, চিকিৎসকরা দুই কন্যাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য দ্রুত বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় বা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পরামর্শ দেন। তবে টাকার অভাবে তিনি ঢাকায় নিয়ে যেতে পারেননি। তাই বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল
কলেজ হাসপাতালে নবজাতকদের ভর্তি করেছেন।
  
তিনি বলেন, মেডিকেলের শিশু ওয়ার্ডের কয়েকজন চিকিৎসকের সঙ্গে কথা বলে জেনেছেন, উন্নত অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে বিচ্ছিন্ন করতে তাদের নিয়ে ঢাকায় যেতে হবে। এতে অনেক টাকার প্রয়োজন। তার পক্ষে এ ব্যয় নির্বাহ করা কঠিন। এ নিয়ে তিনি চরম দুশ্চিন্তার মধ্য আছেন। তাই পেট জোড়া লাগা দুই কন্যাশিশুকে বাঁচিয়ে রাখতে সরকার ও দেশের হৃদয়বান ব্যক্তিদের কাছে সহায়তা প্রত্যাশা করেছেন তিনি।
 
শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শিশু মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক ডা. উত্তম কুমার সাহা জানান, তাদের শরীর আলাদা হলেও পেটের দিকে জোড়া লাগানো আছে। যমজ শিশু দুইটি মেয়ে। এদের যৌনাঙ্গ ও পায়ুপথ আলাদা আছে। প্রাথমিকভাবে দেখে নবজাতক দুটিকে সুস্থ মনে হয়েছে। তাদেরকে স্যালাইনের মাধ্যমে গ্লুকোজ ও অ্যান্টিবায়োটিক দেয়া হচ্ছে। তবে এসব ক্ষেত্রে ২৪ থেকে ৪৮ ঘণ্টা পার না হলে নবজাতকদের শারীরিক অবস্থা নিয়ে কোন কিছুই বলা ঠিক হবে না।

ডা. উত্তম কুমার সাহা বলেন, ৪৮ ঘণ্টা পর পরীক্ষা-নিরীক্ষার মাধ্যমে দেখতে হবে, শিশুদের হার্ট বা শরীরের অন্য অঙ্গগুলো পৃথক আছে কিনা। যদি সব ঠিকঠাক থাকে তাহলে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে তাদের আলাদা করা সম্ভব। তবে সে জন্য ঢাকা নেয়া প্রয়োজন। তাই নবজাতকদের বাবাকে ঢাকায় শেখ মুজিব বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালের সার্জারি বিভাগে উন্নত চিকিৎসা নেওয়ার
পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

-আইএইচ/এনএন


« PreviousNext »



সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
Editor : Iqbal Sobhan Chowdhury
Published by the Editor on behalf of the Observer Ltd. from Globe Printers, 24/A, New Eskaton Road, Ramna, Dhaka.
Editorial, News and Commercial Offices : Aziz Bhaban (2nd floor), 93, Motijheel C/A, Dhaka-1000. Phone :9586651-58. Fax: 9586659-60; Online: 9513959; Advertisemnet: 9513663
E-mail: [email protected], [email protected], [email protected], [email protected],   [ABOUT US]     [CONTACT US]   [AD RATE]   Developed & Maintenance by i2soft