For English Version
শনিবার, ১৫ মে, ২০২১, রেজি: নং- ০৬
Advance Search
হোম সারাদেশ

স্যালাইনের তীব্র সংকট

Published : Sunday, 18 April, 2021 at 12:24 PM Count : 168
অবজারভার সংবাদদাতা

পটুয়াখালীর বাউফলে কলেরা স্যালাইনের তীব্র সংকট দেখা দিয়েছে। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পর্যাপ্ত সরবরাহ না থাকায় বাইরের ফার্মেসি থেকে ডায়রিয়া আক্রান্ত রোগীর জন্য কলেরা স্যালাইন কিনতে হচ্ছে। এই সুযোগে কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করে চড়া দামে কলেরা স্যালাইন বিক্রির অভিযোগ পাওয়া গেছে। 

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, গত ১৫ মার্চ থেকে বাউফলসহ গোটা দক্ষিণাঞ্চলে ডায়রিয়া রোগের প্রকোপ দেখা দেয়। দক্ষিণাঞ্চলের নদ-নদীর পানিতে মাত্রাতিরিক্ত লবণের পরিমাণ বেড়ে যাওয়ার কারণে ডায়রিয়ার প্রাদুর্ভাব ছড়িয়ে পড়েছে। নদ-নদীর লবন পানি কলেরা জীবাণুর অন্যতম উৎস। আর ওই লবণাক্ত পানি রান্নাসহ নানান কাজে ব্যবহার করছেন অধিকাংশ মানুষ। সাধারণ মানুষের মধ্যে সচেতনতা না থাকায় লবণ পানি ব্যবহার করে এ এলাকার ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হচ্ছেন। 

বর্তমানে প্রতিদিন গড়ে ৩০ জন ডায়রিয়া রোগী বাউফল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ইনডোরে চিকিৎসাসেবা নিচ্ছেন। আর আউটডোরে গড়ে ২ হাজার রোগী ডায়রিয়ার চিকিৎসাসেবা  নিচ্ছেন। প্রতিদিন ডায়রিয়া আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ায় হাসপাতালে তিল ধারণের ঠাঁই নেই। বেড না পেয়ে বাউফল হাসপাতালের মেঝেতে চিকিৎসাসেবা নিচ্ছেন অনেকে। সাধারণ রোগীরা হাসপাতালে পর্যাপ্ত ওষুধ ও সেবা না পেয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।  

এদিকে রোগীদের একমাত্র ভরসাস্থল বাউফল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হলেও উপজেলার বেসরকারি ক্লিনিক বা হাসপাতালগুলোতে কোন প্রকার সেবা পাচ্ছেন না ডায়রিয়া আক্রান্ত রোগীরা। 

শুক্রবার রাত ১২টায় বাউফলের কনকদিয়া ইউনিয়নের আমিরাবাদ গ্রামের আবুল কালাম গাজীর স্ত্রী কদভানু (৪৫) ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে বাউফল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে আসেন। সঙ্গে থাকা তার মেয়ে সুমি আক্তার বলেন, রাতে ভর্তি করার পর মেঝেতে ঠাঁই হয় আমাদের। সারারাত কোন সেবিকার দেখা পাইনি। সকালে একটিমাত্র সিপ্রোফ্লক্সাসিন গ্রুপের ওষুধ দেয়া হয়েছে হাসপাতাল থেকে। কলেরা স্যালাইনসহ বাকি ৫ প্রকার ওষুধ বাইরে থেকে কিনতে হয়েছে।

একই কথা বলেন মেঝেতে চিকিৎসা নেয়া যৌতা গ্রামের ইব্রাহিম। দাসপাড়া ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের ইব্রাহিম মুন্সি বলেন, শনিবার আমার ছেলে ইফাতকে বাউফল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করার পর কেনুলা থেকে শুরু করে সব ওষুধ বাইরে থেকে কিনেছি।

এদিকে বাইরের ফার্মেসিগুলোতে চড়া দামে কলেরা স্যালাইন বিক্রির অভিযোগ উঠেছে। কালাইয়া বন্দরের একটি ফার্মেসিতে ৯২ টাকার ১ ব্যাগ কলেরা স্যালাইন ১৫০ টাকায় বিক্রি হয়েছে। এছাড়াও বগা, কালিশুরী, নগরের হাট, নুরাইনপুর ও কাছিপাড়া বাজারের একাধিক ফার্মেসিতে চড়া দামে কলেরা স্যালাইন ও মেট্রোনিডাজল ইনজেকশন অতিরিক্ত দামে বিক্রির অভিযোগ পাওয়া গেছে।  

কলেরা স্যালাইন সংকটের বিষয়টি স্বীকার করে বাউফল উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. প্রশান্ত কুমার সাহা বলেন, গরীব রোগীদের কলেরা স্যালাইনসহ সকল ধরনের ওষুধ হাসপাতাল থেকে দেয়া হচ্ছে। যারা স্বচ্ছল তাদেরকে কিছু ওষুধ বাইরে থেকে কিনতে হচ্ছে। 

তিনি বলেন, এই সময় সবাই সচেতন না হলে ডায়রিয়া আক্রান্ত রোগী সামাল দেয়া সম্ভব হবে না। ডায়রিয়ার কবল থেকে রেহাই পাওয়ার জন্য সবাইকে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলার আহবান জানান তিনি।

-এএস/এনএন


« PreviousNext »



সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
Editor : Iqbal Sobhan Chowdhury
Published by the Editor on behalf of the Observer Ltd. from Globe Printers, 24/A, New Eskaton Road, Ramna, Dhaka.
Editorial, News and Commercial Offices : Aziz Bhaban (2nd floor), 93, Motijheel C/A, Dhaka-1000. Phone :9586651-58. Fax: 9586659-60; Online: 9513959; Advertisemnet: 9513663
E-mail: [email protected], [email protected], [email protected], [email protected],   [ABOUT US]     [CONTACT US]   [AD RATE]   Developed & Maintenance by i2soft