For English Version
শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল, ২০২১, রেজি: নং- ০৬
Advance Search
হোম সারাদেশ

মেয়েকে যৌন ব্যবসায় বাধ্য করায় মায়ের বিরুদ্ধে মামলা

Published : Tuesday, 2 March, 2021 at 8:25 PM Count : 105

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে নিজ মেয়েকে যৌন ব্যবসায় বাধ্য করার অভিযোগে মায়ের বিরুদ্ধে মামলা করেছে পুলিশ। মামলায় স্থানীয় চেয়ারম্যানকেও আসামি করা হয়েছে।

এর আগে উপজেলার আলাইয়াপুর ইউনিয়নে মেয়েকে একাধিকবার গণধর্ষণ, ভিডিও ধারণ ও অপহরণের ঘটনায় মামলা করেন বিউটি আক্তার। সেই মামলার বাদী ও ভিকটিমের মা বিউটি আক্তারের বিরুদ্ধে মেয়েকে যৌন কাজে বাধ্য করায় মামলাটি করা হয়। 

অভিযোগ রয়েছে বিউটি নিজের মেয়েকে (১৭) জোরপূর্বক যৌন ব্যবসায় বাধ্য করেন। মামলায় বিউটি ছাড়াও আলাইয়াপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আনিসুর রহমানসহ আরও ৫ জনকে আসামি করা হয়েছে। 
 
মঙ্গলবার দুপুরে বেগমগঞ্জ মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) রুহুল আমিন বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন।

ঘটনার প্রতিবাদ ও বিচারের দাবীতে মঙ্গলবার বিকেলে আলাইয়াপুর ৬নং ওয়ার্ড নাফিতের পোল এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল ও হীরাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে মনববন্ধন করে স্থানীয় এলাকাবাসী।

পুলিশ জানায়, মামলায় অভিযুক্ত ১নং আসামি ২৫ ফেব্রুয়ারি রাতে তার মেয়েকে (১৭) ধর্ষণ, বিবস্ত্র করে ছবি ধারণ ও অপরহরণ করা হয়েছে অভিযোগ এনে চারজনের বিরুদ্ধে পৃথক দুটি মামলা দায়ের করেন। মামলার সূত্র ধরে অভিযান চালিয়ে আসামি ফয়সাল, সাইফুল ইসলাম ইমন ও জোবায়েরকে গ্রেপ্তার করা হয়। 

২৭ ফেব্রুয়ারি (শনিবার) সন্ধ্যায় ঢাকার সাভারের পূরগাও এলাকার রুবি নামের একজনের বাসা থেকে ভিকটিমকে উদ্ধার করে পুলিশ। পরদিন ভিকিটিম অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী আদালত-৩ এর বিচারকের কাছে স্বেচ্ছায় ২২ ধারায় জবানবন্দি দেন
 
পুলিশ আরও জানায়, জবানবন্দি ও মামলার তদন্ত করতে গিয়ে জানা যায়, ২০১৮ সাথে ভিকটিম ধীতপুর দারুল উলুম দাখিল মাদ্রাসায় অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী ছিল। ২০১৭ থেকে ২৮ ডিসেম্বর ২০২০সাল পর্যন্ত ভিকটিমকে দিয়ে তার মা বিউটি আক্তার জোরপূর্বক টাকার বিনিময়ে দেহব্যবসা করাতো। কখনো নিজ বাড়িতে, কখনো ঢাকা ও চট্টগ্রামে যৌন কাজে মেয়েকে পাঠাতো মা বিউটি। 

বিষয়টির প্রতিবাদ করলে কয়েকবার ভিকটিমের হাত-পা বেঁধে মারধর করে বিউটি। আগের মামলার সাক্ষী ও বর্তমান মামলার আসামি মোজ্জামেল হোসেন বিউটিকে টাকা দিয়ে ঘরে এসে ভিকটিমের সাথে শারীরিক সম্পর্ক করতো। একরাতে মোজাম্মেলের সাথে যৌন কাজে লিপ্ত হলে স্থানীয় ফয়সাল ও জোবায়ের দেখে ফেলে এবং তাদের দুইজনের বিবস্ত্র ছবি ও ভিডিও মোবাইলে ধারণ করে। 

একপর্যায়ে মোজাম্মেলকে বের করে দিয়ে ভিকটিমকে গণধর্ষণ করে ফয়সাল ও জোবায়ের। পরে বিউটি স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আনিসুর রহমানের থেকে টাকা নিয়ে তার বাড়িতে পাঠায় মেয়েকে। চেয়ারম্যান আনিস নিজ বাড়িতে রেখে একাধিকবার ধর্ষণ করে ভিকটিমকে।

পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) রুহুল আমিন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ভিকটিম ও গ্রেপ্তারকৃত আসামিদের জবানবন্দির আলোকে পতিতাবৃত্তির উদ্দেশ্যে নিজ মেয়েকে শারীরিক নির্যাতন, আটক রেখে পতিতাবৃত্তিতে বাধ্যকরণ, অবৈধভাবে অর্থের বিনিময়ে যৌন শোষণ ও স্থানান্তরিত করে যৌনকর্ম করার অপরাধে মা বিউটি ও চেয়ারম্যানসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে মানবপাচার ও দমন আইনে মামলা দায়ের করেছে। 

ঘটনায় গ্রেপ্তার বিউটিকে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। চেয়ারম্যান আনিসসহ মামলার অপর আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।
 
বেগমগঞ্জ থানার ওসি কামরুজ্জামান সিকদার জানান, মেয়েকে ধর্ষণ, অপরহণ, নগ্ন ভিডিও ধারণের ঘটনায় আগে দুটি ও মানবপাচার দমন আইনে আরও একটি মামলা হয়েছে। মামলায় মোট ৫ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

-এমআর/এনএন


« PreviousNext »



সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
Editor : Iqbal Sobhan Chowdhury
Published by the Editor on behalf of the Observer Ltd. from Globe Printers, 24/A, New Eskaton Road, Ramna, Dhaka.
Editorial, News and Commercial Offices : Aziz Bhaban (2nd floor), 93, Motijheel C/A, Dhaka-1000. Phone :9586651-58. Fax: 9586659-60; Online: 9513959; Advertisemnet: 9513663
E-mail: [email protected], [email protected], [email protected], [email protected],   [ABOUT US]     [CONTACT US]   [AD RATE]   Developed & Maintenance by i2soft