For English Version
শুক্রবার, ০৫ মার্চ, ২০২১, রেজি: নং- ০৬
Advance Search
হোম জাতীয়

দ্বিতীয় ধাপে ৬০ পৌরসভায় ভোট শেষ, চলছে গণনা

Published : Saturday, 16 January, 2021 at 5:37 PM Count : 70

দ্বিতীয় ধাপে ৬০টি পৌরসভায় ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে। শনিবার (১৬ জানুয়ারি) সকাল ৮টায় ভোট গ্রহণ শুরু হয়।বিচ্ছিন্ন কিছু ঘটনার মধ্য দিয়ে বিকেলে ৪টায় ভোটগ্রহণ শেষ হয়। ভোট গণনা শেষে ফলাফল প্রকাশ করা হবে। অনুষ্ঠিত পৌরসভার গুলোর মধ্যে ২৮টিতে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) এবং বাকিগুলোতে ব্যালটের মাধ্যমে ভোট হয়েছে। 

এদিন ভোট কারচুপি ও কেন্দ্র দখলের অভিযোগ এনে মোংলা পোর্ট পৌরসভার নির্বাচনে বিএনপি মনেনীত প্রার্থী মো. জুলফিকার আলী ভোট বর্জন করেছেন। একই সঙ্গে বিএনপি সমর্থিত ১২ জন কাউন্সিলর ও সতন্ত্র দুইজন কাউন্সিলর প্রার্থী ভোট বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন।সকাল সাড়ে ১০টায় শহরের মাদরাসা রোডের নিজ বাসভবনে সংবাদ সম্মেলন করে বিএনপি মনেনীত প্রার্থী মো. জুলফিকার আলী নির্বাচন বর্জন করার এ ঘোষণা দেন।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি অভিযোগ করেন, ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীদের চাপে সাধারণ ভোট কেন্দ্রে যেতে পারছেন না। বাঁধা পেরিয়ে কেউ কেউ যেতে পারলেও সরকারি দলের নিয়োগ করা ক্যাডারদের সামনে তাদের পছন্দের প্রতীকে ভোট দিতে বাধ্য করা হচ্ছে। এভাবে কোনো সভ্য দেশে নির্বাচন হতে পারে না। আমি নিজে কয়েকটি কেন্দ্র এমনি লজ্জাজনক ভোট ডাকাতির চিত্র দেখেছি।

এছাড়া একজন মেয়র প্রার্থীর মৃত্যুতে নীলফামারীর সৈয়দপুর পৌরসভার ভোট স্থগিত করা হয়েছে।

অন্যদিকে ফেনীর দাগনভূঞা পৌরসভার নির্বাচনে গনিপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে দুটি ককটেল বিস্ফোরিত হয়েছে। এ ঘটনায় ১০ জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। পরে ডিবি পুলিশ, র‌্যাবসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। সকাল সাড়ে ৯টার দিকে এই ঘটনা ঘটে।

প্রিজাইডিং অফিসার গোরফান উদ্দিন জানান, সকালে দাগনভূঞা পৌর নির্বাচনে গনিপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে দুটি ককটেল বিস্ফোরিত হয়েছে। দুর্বৃত্তরা ককটেল বিস্ফোরণ করে দ্রুত সরে যায়। এতে ভোটাররা আতঙ্কিত হয়ে পরেন। এ ঘটনায় কোনও হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

এছাড়া কুষ্টিয়া পৌরসভার ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী রবিউল ইসলাম রবি ভোটারদের জন্য পোলাও-মাংস রান্না করে পাঠাচ্ছিলেন।

পৌরসভার ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের বারখাদা বালক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে এলাকায় দেখা যায় বড় বড় ডেকচিতে চলছে পোলাও রান্না। অন্যপাশে চলছে ভোট গ্রহণ। সেখান থেকে খাবার প্যাকেটজাত করে ভ্যানে বোঝাই করে পাঠানো হচ্ছিল ভোটারদের বাড়ি বাড়ি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে খবরটি ছড়িয়ে পড়লে সেখানে হানা দেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। জব্দ করা হয় ১০ ড্যাগ (পোলাও রান্নার বড় পিাতিল) ও ১০০ প্যাকেট পোলাও। জব্দ করা পোলাও এতিমখানার বাচ্চাদের মধ্যে বিতরণ করা হয়।

নির্বাচন পরিচালনা শাখা থেকে জানা গেছে, ৬০টি পৌরসভায় তিন পদে ৩ হাজার ২৮৬ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। এরমধ্যে মেয়র পদে ২২১, সংরক্ষিত নারী কমিশনার পদে ৭৪৫ জন এবং সাধারণ কমিশনার পদে ২ হাজার ৩২০ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এ ধাপে ১ হাজার ৮০টি ভোটকেন্দ্রের ৬ হাজার ৫০৮ ভোটকেন্দ্রে ২২ লাখ ৪০ হাজার ২২৬ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করার সুযোগ পাবেন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১১ লাখ ৮ হাজার ৪৩১ জন এবং মহিলা ভোটার ১১ লাখ ৩১ হাজার ৮৩১ জন।   

যে ৬০ পৌরসভায় ভোট সেগুলো হচ্ছে: চট্টগ্রামের সনদ্বীপ (ব্যালট), সিরাজগঞ্জের কাজীপুর (ইভিএম), বেলকুচি (ব্যালট), উল্লাপাড়া (ব্যালট), সদর (ব্যালট) ও রায়গঞ্জ (ব্যালট), নেত্রকোনার মোহনগঞ্জ (ব্যালট), কুষ্টিয়া সদর (ব্যালট), কুমারখালী (ইভিএম), ভেড়ামারা (ব্যালট) ও মিরপুর (ব্যালট), মৌলভীবাজারের কুলাউড়া (ব্যালট) ও কমলগঞ্জ (ব্যালট), নারায়ণগঞ্জের তারাবো (ইভিএম), শরীয়তপুর সদর (ইভিএম), কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী (ব্যালট), গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ (ব্যালট) ও সদর (ব্যালট), দিনাজপুর সদর (ব্যালট), বিরামপুর (ব্যালট) ও বীরগঞ্জ (ইভিএম), নওগাঁর নজিপুর (ইভিএম), পাবনার ভাঙ্গুড়া (ব্যালট), ফরিদপুর (ইভিএম), সাথিয়া (ব্যালট), ঈশ্বরদী (ব্যালট), রাজশাহীর আড়ানী (ইভিএম), ভবানীগঞ্জ (ব্যালট) ও কাকনহাট (ইভিএম), সুনামগঞ্জ সদর (ব্যালট), ছাতক (ব্যালট) ও জগন্নাথপুর (ইভিএম), হবিগঞ্জের মাধবপুর (ব্যালট) ও নবীগঞ্জ (ব্যালট), ফরিদপুরের বোয়ালমারী (ব্যালট), ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়া (ইভিএম) ও মুক্তাগাছা (ব্যালট), মাগুরা সদর (ইভিএম), ঢাকার সাভার (ইভিএম), নাটোরের নলডাঙ্গা (ইভিএম), গুরুদাসপুর (ব্যালট) ও গোপালপুর (ব্যালট), বগুড়ার শেরপুর (ব্যালট), সারিয়াকান্দি (ইভিএম) ও সান্তাহার (ইভিএম), পিরোজপুর সদর (ইভিএম), নেত্রকোনার কেন্দয়া (ইভিএম), মেহেরপুরের গাংনী (ইভিএম), ঝিনাইদহের শৈলকুপা (ইভিএম), পার্বত্য খাগড়াছড়ি সদর (ইভিএম), বান্দরবান জেলার লামা (ব্যালট), টাঙ্গাইলের  ধনবাড়ী (ইভিএম), কুমিল্লার চান্দিনা (ইভিএম), ফেনীর দাগনভূঞা (ইভিএম), কিশোরগঞ্জ সদর (ব্যালট) ও কুলিয়ারচর (ইভিএম), নরসিংদীর মনোহরদী (ইভিএম), নোয়াখালীর বসুরহাট (ইভিএম) এবং বাগেরহাটের মোংলা (ইভিএম) পৌরসভা।

দেশের পৌরসভা রয়েছে মোট ৩২৯টি। প্রথম ধাপের তফসিলের ২৪টি পৌরসভায় ইভিএমে ভোট হয় ২৮ ডিসেম্বর। এছাড়া আর তৃতীয় ধাপে ৬৪টি পৌরসভায় ৩০ জানুয়ারি এবং চতুর্থ ধাপে ৫৬টি পৌরসভায় ১৪ ফেব্রুয়ারি ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

এইচএস


« PreviousNext »



সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
Editor : Iqbal Sobhan Chowdhury
Published by the Editor on behalf of the Observer Ltd. from Globe Printers, 24/A, New Eskaton Road, Ramna, Dhaka.
Editorial, News and Commercial Offices : Aziz Bhaban (2nd floor), 93, Motijheel C/A, Dhaka-1000. Phone :9586651-58. Fax: 9586659-60; Online: 9513959 & 01552319639; Advertisemnet: 9513663
E-mail: [email protected], [email protected], [email protected], [email protected],   [ABOUT US]     [CONTACT US]   [AD RATE]   Developed & Maintenance by i2soft