For English Version
রবিবার, ১৭ জানুয়ারি, ২০২১, রেজি: নং- ০৬
Advance Search
হোম বেড়িয়ে আসুন

ইয়ানবু শহরে একদিন

Published : Tuesday, 24 November, 2020 at 12:17 PM Count : 179
সাগর চৌধুরী, সৌদি আরব প্রতিনিধি

লোহিত সাগরের নীল ফেনিল জলরাশি আর সৈকতের শুভ্র বালু সৌদি আরবের ইয়ানবু শহরকে এক অনন্য মাত্রা দিয়েছে। মদিনা থেকে প্রায় ১৫০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত ইয়ানবুতে তেল শোধনাগার ও তেল রপ্তানির পোর্ট, শিল্প কারখানা ও ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান শহরটির গুরুত্ব বাড়িয়ে দিয়েছে বহুগুণে।

ইয়ানবুর ব্যবসা বাণিজ্য বৃদ্ধির লক্ষ্যে ১৯৭৫ সালে একে রয়েল কমিশনের আওতায় এনে শিল্প কারখানার জন্য পর্যাপ্ত সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করাসহ শহরকে আধুনিক করে গড়ে তোলা হয়। ইয়ানবুর ইতিহাস প্রায় আড়াই হাজার বছর পুরানো।

এক সময় ইয়ানবুর বন্দর দিয়ে মসলা, সুগন্ধিসহ বিভিন্ন পণ্য মিশর থেকে ইয়েমেন ও অন্যান্য দেশে পৌঁছে যেত। ইয়ানবুর বন্দর এ অঞ্চলে বিভিন্ন পণ্য সরবরাহে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করত। 

ব্রিটিশ গোয়েন্দা বাহিনীর অফিসার থমাস এড ওয়ার লরেন্স, যিনি “লরেন্স অফ আরাবিয়া” নামে পরিচিত তিনি ১৯১৫-১৬ সালে প্রথম বিশ্বযুদ্ধে অটোমানদের বিরুদ্ধে লড়াই করার লক্ষ্যে তার বাহিনী নিয়ে ইয়ানবুতে অবস্থান করেন। লরেন্স এখানে থেকে অটোমানদের বিরুদ্ধে গেরিলা যুদ্ধ পরিচালনা করতেন এবং বন্দর এলাকা থেকে এ অঞ্চলের সরবরাহ বন্ধ করে দিয়েছিলেন যার ফলে সহজেই বিজয় অর্জন করেন। লরেন্স ও তাঁর বাহিনী ইয়ানবুতে যে বাড়িগুলোতে বসবাস করতেন তা দীর্ঘদিন পরিত্যাক্ত অবস্থায় ছিল। সম্প্রতি ইয়ানবু শহরের মেয়র আহমেদ আল মাহতুত সৌদি আরবের ভিশন ২০৩০ বাস্তবায়নে পর্যটন বৃদ্ধির পরিকল্পনার অংশ হিসেবে এ সকল পরিত্যাক্ত ভবন সংস্কারের কাজ শুরু করেছেন। 

গত শতাব্দীর অভিজাত দ্বিতল বাড়িগুলো ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছিল এবং ইতিহাস সমৃদ্ধ দর্শণীয় এ স্থানটি সুরক্ষিত করার জন্য পুরানো দালানগুলো পুনরুদ্ধার ও সংরক্ষণ করে জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত করার পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। দীর্ঘ পরিত্যক্ত এই বাড়িগুলোতে ভূতের বসবাস বলে স্থানীয়রা বিশ্বাস করতেন। 

কিন্তু মেয়র এই গুজবকে উড়িয়ে দিয়ে বলেন, এটি একবারেই সত্যি নয়। ভূতের ভয়ে সৌদি নাগরিকরা দীর্ঘদিন এই সকল বাড়ি থেকে দূরে থাকতেন। এই বাড়িগুলো ইয়ানবুর ঐতিহ্যের অংশ এবং পর্যটকরা খুব শীঘ্রই এই বাড়িগুলো পরিদর্শন করতে পারবেন। 

বাড়িগুলোর পাশেই রয়েছে একটি মসজিদ, যা অটোমান আমলে নির্মিত পুরানো দিনের আদলে সংস্কার করা হয়েছে। আমরা মাগরিবের নামাজ আদায় করলাম এই ঐতিহাসিক মসজিদে। ইয়ানবুর সৌদি ব্যবসায়ী হিজ্জি আমাদের পুরো এলাকা ঘুরে দেখান এবং খুব সাবলীল ভাষায় লরেন্স অফ আরাবিয়ার ইতিহাস বর্ণনা করেন। তাঁর চমৎকার ইংরেজি উচ্চারণ আমাদের মুগ্ধ করে। 

বাড়িগুলোর পাশেই রয়েছে একটি হেরিটেজ মার্কেট যা শত বছরের পুরানো ঐতিহ্য ধরে রেখেছে। আরব রমণীরা মার্কেটটিতে ছোট ছোট দোকানে বিভিন্ন মনোরম শিল্পকর্ম, নারীদের ঐতিহ্যবাহী জামা, সুগন্ধিসহ নানা পণ্যের পসরা সাজিয়ে বসে আছেন। ছোট ছোট দোকানগুলোতে ঘুরতে যেয়ে মনে হবে যেন ফিরে গেছি প্রাচীন আরব সংস্কৃতিতে। মার্কেটের দোকানগুলোর সামনে রয়েছে কাঠের ভাঁজ করা দরজা। যা ওপরে নিচে দু'ভাগে ভাঁজ করে রাখা হয়। নিচের অংশ ভাঁজ করে একটি বেদির মত অংশে রাখা হয়, যেখানে বিভিন্ন জিনিস সাজিয়ে রাখা যায়। এছাড়া রয়েছে ঐতিহ্যবাহী কিছু মনোরম স্মারকের দোকান। যেখানে শতবর্ষ পুরানো বিভিন্ন দালানের স্মারক পাওয়া যায়। 

ইয়ানবুতে রয়েছে ব্যক্তিগত উদ্যোগে গড়ে উঠা ছোট একটি যাদুঘর। 

সৌদি নাগরিক সালেম আল জুহাইয়নি বলেন, 'তিনি খুব ছোটবেলা থেকে যাদুঘরটি গড়ে তুলেছেন। যেখানে রয়েছে শতবর্ষের পুরানো বন্দুক, খবরের কাগজের কপি, বিভিন্ন মুদ্রা, সৌদিদের ব্যবহৃত বিভিন্ন জিনিসপত্র। এছাড়া রয়েছে বন্দর এলাকার নানা দর্শণীয় ঐতিহাসিক বস্তু। যাদুঘরে প্রায় ১০ মিলিয়ন সৌদি রিয়ালের সমপরিমাণ বিভিন্ন জিনিসপত্র রয়েছে।'

সৌদি ব্যবসায়ী হিজ্জি বলেন, 'এখানে অনেক বাংলাদেশি অভিবাসী কর্মরত রয়েছেন। যার প্রমাণ পেলাম স্থানীয় একটি নামকরা ফিশ ফ্রাইয়ের দোকানে গিয়ে। এখানে তাজা মাছ কেজি দরে কিনে ফ্রাই করে খেতে হয়। যার সবই লোহিত সাগরের মাছ। দোকানটিতে সকল কর্মচারীই বাংলাদেশি। শুধু ম্যানেজার হিসেবে রয়েছে একজন মিশরীয় নাগরিক। দোকানের বাইরে বাংলাদেশি অভিবাসী মোস্তফা দুধ দিয়ে বিশেষ ভাবে তৈরী চা আমাদের আপ্যায়ন করেন।'

-এসসি/এমএ


« PreviousNext »



সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
Editor : Iqbal Sobhan Chowdhury
Published by the Editor on behalf of the Observer Ltd. from Globe Printers, 24/A, New Eskaton Road, Ramna, Dhaka.
Editorial, News and Commercial Offices : Aziz Bhaban (2nd floor), 93, Motijheel C/A, Dhaka-1000. Phone :9586651-58. Fax: 9586659-60; Online: 9513959 & 01552319639; Advertisemnet: 9513663
E-mail: [email protected], [email protected], [email protected], [email protected],   [ABOUT US]     [CONTACT US]   [AD RATE]   Developed & Maintenance by i2soft