For English Version
বুধবার, ২৮ অক্টোবর, ২০২০
Advance Search
হোম অর্থ ও বাণিজ্য

রাজশাহীতে দ্বিগুণ দামে বিক্রি হচ্ছে আলু

Published : Thursday, 15 October, 2020 at 5:43 PM Count : 74

এক মাস আগেও বাজারে আলু ২৫ থেকে ৩০ টাকা কেজিতে পাওয়া যেতো। কিন্তু মাস ঘুরতে না ঘুরতে সেই আলুর দাম এখন বেড়েছে ২০-২৫ টাকা। বর্তমানে রাজশাহীর খুচরা বাজারগুলোতে প্রতিকেজি আলু বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৫০ টাকার মধ্যে।

খুচরার পাশাপাশি আলুর দাম বেড়েছে পাইকারী বাজারেও। আলুর দাম বাড়ার বিষয়ে পাইকার ব্যবসায়ীরা বলছেন, করোনা ভাইরাসের ভয়াবহতার মধ্যে ত্রাণ বিতরণে আলুর ব্যবহার উল্লেখযোগ্যহারে বেড়েছে, এ কারণে আলুর মজুদ শেষ হয়ে আসছে। তাছাড়া আলুর উৎপাদন কম হওয়া, বন্যায় নতুন আলুর রোপণ কমে যাওয়ার পাশাপাশি ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়। এছাড়া নিত্যপণ্যের মূল্য বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে আলুরও দাম বাড়ে সমান্তরালভাবে।

খুচরা ব্যবসায়ীরা বলছেন, আলু পাইকার বাজার থেকে নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে নিতে বহন খরচ, চাঁদা, পরিবহন ভাড়া ও দোকান ভাড়া লাগছে। শুধু তাই নয়, পাইকার বাজারে আলুর দামও চড়া। আমাদের বেশি দাম দিয়ে পাইকার বাজার থেকে কিনতে হচ্ছে।

হঠাৎ আলুর দাম বাড়ার কারণ জানতে চাইলে রাজশাহীর সাহেব বাজার কাঁচাবাজারের ব্যাবসায়ী রিপন বলেন, আলুর দাম বেড়ে যাওয়ার কারণ, মূলত করোনার ভয়াবহ সময়ে ত্রাণ বিতরণে ব্যাপকহারে আলুর ব্যবহার হয়েছে। এতে আলুর আড়তসহ স্থানীয় বাজারে আলুর সরবরাহ কমে যায় এতে দাম বাড়তে থাকে।

আরেক ব্যাবসায়ী দেলোয়ার বলেন, জমিতে আলুর উৎপাদন কম হওয়া, চলমান বন্যায় নতুন আলুর ক্ষেত ক্ষতিগ্রস্ত হওয়াসহ অন্যান্য সবজির দাম বাড়ার সঙ্গেও আলুর দাম বাড়ার কারণ জড়িত আছে। তাছাড়া পেঁয়াজ-রসুনের দাম বাড়লে আলুরও দাম বাড়ে। তবে এখন স্থানীয় পর্যায়ে আলু খুব বেশি না থাকায় আলুর যোগান কমে আসায় দাম বাড়ছে। বাজারে নতুন আলু উঠলে দাম কমতে শুরু করবে।

এদিকে সঠিকভাবে বাজার মনিটরিং না করায় অসাধু ব্যবসায়ীরা পণ্যের দাম বাড়িয়ে দিচ্ছেন বলে জানিয়েছেন ক্রেতারা। তারা বলছেন, যখন দেশের মধ্য একটা জিনিসের সংকট দেখা দেবে তখন অন্যটির দাম বাড়ানো প্রতিযোগিতা শুরু হয়ে যায়। আলুর দাম বাড়ার পেছনেও কাজ করেছে অসাধু ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট। নিয়মিত বাজার মনিটরিং না হওয়া আর ব্যবসায়ী সিন্ডিকেটের কবলে পড়েছে আলু।

রাজশাহীর সাহেব বাজারের কাচাবাজারে আলুসহ নিত্য প্রয়োজনীয় সবজি কিনতে আসা শহীদুল জানান, বন্যায় ফসল এর ক্ষতি হয়েছে। এতে বাজারে শাক সবজির দাম বাড়বে। এটা স্বাভাবিক। কিন্তু বাজার দর বাড়ার একটা মাত্রা আছে। সঠিকভাবে বাজার মনিটরিং না থাকায় কিছু অসাধু ব্যবসায়ীরা অতিরিক্ত দাম বাড়াচ্ছে। এ বিষয়ে প্রশাসনের কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া দরকার।

আলুর দাম হঠাৎ করে বেড়ে যাওয়ার বিষয়ে ক্রেতা মোজাফফর বলেন, বন্যার কারণে জমিতে সবজির আবাদ কম হওয়ায় আশ্বিন-কার্তিক মাসে দাম বেড়ে যায়। এসময় আমাদের মতো খেটে খাওয়া মানুষের সমস্যায় পড়তে হয়। বাড়তি দাম দিয়ে আলু কেনায় বিড়ম্বনায় পড়তে হচ্ছে। আর বাজারের খুচরা দোকানিরা এই সুযোগে বাড়তি দাম হাতিয়ে নিচ্ছে।

এদিকে ইচ্ছেমতো দামে আলু বিক্রির অভিযোগ পেয়ে রাজশাহীর কয়েকটি হিমাগার পরিদর্শন করেছে ভোক্তা সংরক্ষণ অধিদফতরের সহকারি পরিচালক হাসান আল মারুফ। তবে হিমাগারগুলোতে বেশী দামে আলু বিক্রি হলেও কোন ব্যবস্থা নেয়নি সংস্থাটি।





এছাড়া সরকার নির্ধারিত আলুর বাজার মূল্য নিয়ন্ত্রণে রাজশাহীতে কোল্ডস্টোরে অভিযান চালিয়েছে প্রশাসন। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে মহানগরীর সরকার কোলেস্টরেলসহ অন্যান্য স্টরে অভিযান চালান জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

এ সময় স্টোরে অতিরিক্ত আলু মজুদ করা আছে কিনা? তা দেখা হয়। পাশাপাশি আলু মজুদ রেখে কেউ যেন ফায়দা না লুটতে পারে, সে বিষয়টি লক্ষ্য রাখার জন্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে স্টোর মালিকদের প্রতি আহবান জানানো।  তবে হিমাগারগুলোতে বেশী দামে বিক্রি হলেও কোনো ব্যবস্থা নেয়নি প্রশাসন।

আরএইচএফ/এসআর


« PreviousNext »



সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
Editor : Iqbal Sobhan Chowdhury
Published by the Editor on behalf of the Observer Ltd. from Globe Printers, 24/A, New Eskaton Road, Ramna, Dhaka.
Editorial, News and Commercial Offices : Aziz Bhaban (2nd floor), 93, Motijheel C/A, Dhaka-1000. Phone :9586651-58. Fax: 9586659-60; Online: 9513959 & 01552319639; Advertisemnet: 9513663
E-mail: [email protected], [email protected], [email protected], [email protected],   [ABOUT US]     [CONTACT US]   [AD RATE]   Developed & Maintenance by i2soft