For English Version
রবিবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০
হোম সারাদেশ

প্রিয় শখ এখন লাভজনক ব্যবসায় পরিণত হয়েছে এরশাদের

Published : Sunday, 9 August, 2020 at 2:34 PM Count : 176
অবজারভার সংবাদদাতা

শখের বসে কবুতর কিনেছেন ৮ বছর আগে। তাঁর নিজ বাড়িতে শখ করে মাত্র ৪শ টাকায় এক জোড়া কবুতর কিনে পালন করে এখন সফল কবুতর খামারি বরগুনার বেতাগী পৌরসভার ১ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মো. সাইদুল ইসলাম এরশাদ (৩২)।

পৃথিবীর সব দেশেই দেখা যায় এ শান্তির প্রতীক কবুতর। বাংলাদেশসহ এ উপমহাদেশে অনেকেই কবুতর পালন করেন অতিপ্রাচীনকাল থেকে। জনপ্রিয় গৃহপালিত পাখি পারাবত। জনশ্রুতি রয়েছে প্রাচীনকালে গৃহপালিত কবুতর চিঠির আদান-প্রদান করতো।

বাংলাদেশের জলবায়ু এবং বিস্তীর্ণ শষ্যক্ষেত কবুতর পালনের জন্য অত্যন্ত উপযোগী। পৃথিবীতে ২শ প্রজাতির কবুতর রয়েছে। এর মধ্যে বাংলাদেশে ৩০ প্রজাতির কবুতরের দেখা মেলে। পূর্বে এ পাখিটি শখ করে পালন করতো অনেকেই। এখন সেই সৌখিনতা লাভজনক পেশায় পরিণত হয়েছে।

সরেজমিনে গিয়ে জানা গেছে, বেতাগী পৌরসভার পুরাতন থানার সামনে এরশাদের বাড়ি। এরশার ও তার ছোট বোন খাদিজাকে রেখে শৈশবে তাদের মা বিলকিস বেগম মারা যায়। এরপর বাবা জাহাঙ্গীর হোসেন দুলাল বিয়ে করে পৃথক হয়ে যান। মাতৃবিয়োগ ও পিতার পৃথকের কারণে এরশাদের পড়ালেখার ইচ্ছে থাকলেও সুযোগ হয়নি। ছোট বোন খাদিজার ভরণ-পোষণ ও লেখাপড়া সকল খরচই মেটাতে হচ্ছে তাকে। জীবন-জীবিকার টানে শ্রমিক থেকে শুরু করে বিভিন্ন ধরনের কাজ করে এরশাদ। 

বর্তমানে বেতাগী বাসষ্ট্যান্ডে একটি মোবাইল সার্ভিসিং, ফ্লেক্সিলোড ও বিকাশের লেনদেনের কাজ করছেন এরশাদ। ওই দোকানের বিপরীত পাশে একটি দোকান ঘর ভাড়া করে বিভিন্ন প্রজাতির পাখি পালন করছেন। এতে লাভবান হয়েছেন। 

এরশাদ জানায়, ‘শখ করে কবুতর পালন করে এখন লাভজনক পেশা ও ব্যবসায় পরিণত হয়েছে।’

জালালী, গিরিবাজ, শুয়াচন্দন, কালোদম, গিয়াসহ বিভিন্ন প্রজাতির কবুতর পালন করছেন তিনি। প্রত্যেক জাতের কবুতরের জন্য আলাদা আলাদা খাঁচা রয়েছে। একজোড়া জালালী কবুতর ৬শ থেকে ৮শ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। একজোড়া থেকে প্রতি মাসে এক জোড়া ডিম ও বাচ্চা পাওয়া যায়। 

একজোড়া গিরিবাজ কবুতরের দাম ৮শ থেকে এক হাজার টাকা। একজোড়া কবুতর ১৮ দিন পর পর একজোড়া বাচ্চা দেয়। এ কবুতর বদ্ধ ঘরে পালন করা যায়। পোষা কবুতর ছেড়ে দিয়ে হাততালি দিলে উপরে উঠতে থাকে। যত হাততালি দিয়ে শব্দ করবে তত ওপরে উঠবে। যতক্ষণ পর্যন্ত হাততালির শব্দ শুনবে ততক্ষণ উড়তে থাকবে। এসব দৃশ্য অবলোকন করার মতো। 

শুয়াচন্দন বা ফেন্সি জাতের কবুতর দেখতে খুবই সুন্দর। এ জাতের কবুতর চন্দনবর্ণ এবং গলায় আকর্ষণীয় একজোড়া গোলাকার দাগ হয়ে থাকে। একজোড়া শুয়াচন্দন কবুতরের দাম ১ হাজার ২শ থেকে ১ হাজার ৬শ টাকা পর্যন্ত হয়ে থাকে। প্রতি ২৫ দিনে একজোড়া শুয়াচন্দন থেকে একজোড়া বাচ্চা ও ডিম পাওয়া যায়। 

কালোদম কবুতরের গাঁ সাদা এবং লেজ কালো। ইহা দেখতে খুবই সুন্দর। এক জোড়া কালোদম কবুতর প্রতি মাসে এক জোড়া বাচ্চা দেয়। এ জাতের কবুতর একজোড়ার দাম ৩ হাজার থেকে ৪ হাজার টাকা পর্যন্ত হয়ে থাকে। 





গিয়াবাসুন্নি জাতের কবুতর সাধারণত গিয়া বর্ণের হয়ে থাকে। এ জাতের কবুতরও প্রতি মাসে এক জোড়া বাচ্চা দেয়। দাম এক থেকে দেড় হাজার টাকা।

এরশাদের কাছে বিভিন্ন জাতের ১শ’র বেশি কবুতর রয়েছে। গম, চাল, ভূষি, ভূট্টা ভাংগা, সরিষা, ধান, চাল, ছোলাবুট, মটরডালসহ পরিমিত পানি দিনে ২/৩ বার দিতে হয়। এতে প্রতি মাসে সাড়ে ৩ হাজার থেকে ৪ হাজার টাকা খরচ হয়।

তিনি বলেন, ‘কবুতরের বেশি খাবারেরও প্রয়োজন হয় না। প্রতিদিন ২/৩ বার খাবার ও পানি দিলেই হয়। তবে নিয়মিত এর বিষ্ঠা পরিষ্কার করতে হয়। প্রতি মাসে সকল খরচের পর ১৫ থেকে ২০ হাজার টাকা কবুতর বিক্রি করে আয় করি।’

-এসকেডি/এমএ


« PreviousNext »



সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
Editor : Iqbal Sobhan Chowdhury
Published by the Editor on behalf of the Observer Ltd. from Globe Printers, 24/A, New Eskaton Road, Ramna, Dhaka.
Editorial, News and Commercial Offices : Aziz Bhaban (2nd floor), 93, Motijheel C/A, Dhaka-1000. Phone :9586651-58. Fax: 9586659-60; Online: 9513959 & 01552319639; Advertisemnet: 9513663
E-mail: [email protected], [email protected], [email protected], [email protected],   [ABOUT US]     [CONTACT US]   [AD RATE]   Developed & Maintenance by i2soft