For English Version
বৃহস্পতিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০
হোম সারাদেশ

ভোলায় জোয়ারের পানিতে স্কুলসহ ক্ষতিগ্রস্ত কয়েকশ' পরিবার

Published : Thursday, 6 August, 2020 at 9:54 PM Count : 103

উজান থেমে নেমে আসা পানির ঢল ও পূর্নিমার জোয়ারের প্রভাবে ভোলার নদীর পানি বিপদ সীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এতে পানিতে তলিয়ে গেছে নিচু এলাকা। পানি বন্দি হয়ে পড়েছে বাধের বাইরের অন্তত ৩০ হাজার মানুষ। ভোলা সদর উপজেলার রামদাসপুর সহ অন্তত দশটি চরের এক হাজারের বেশি পরিবার।

এদিকে ইলিশা, রাজাপুর ও ধনিয়া ইউনিয়নের বেশ কিছু পয়েন্ট দিয়ে ঝুঁকির মধ্যে পড়েছে শহর রক্ষা বাধ। এতে আতংকিত হয়ে পড়েছ নদীর তীরবর্তি মানুষ। বসতঘর ও ফসলি জমি তলিয়ে যাওয়ার শংকার মধ্যে তারা। তবে পানি উন্নয়ন বোর্ড বলছে, ঝুঁকিপূর্ন এলাকায় দ্রুত তাৎক্ষতিক ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

স্থানীয়রা জানান, উজান থেকে নেমে আসা আকস্মিক জোয়ার আর পূর্নিমান প্রভাবে গত দুই দিন ধরে (বুধ ও বৃহস্পতিবার) ভোলায় মেঘনার পানি বিপদী সামার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এতে ঝুঁকির মধ্যে পড়েছে সদরের ইলিশা, তুলাতলী ও নাছির মাঝি পয়েন্টের বাঁধ। এছাড়াও পানিতে প্লাবিত হয়েছে। বাধের নিচু এলাকা। ভাঙ্গন আতংকে নিঘূম রাত কাটাচ্ছেন বাধ সংলগ্ন এলাকার মানুষ।

নদীর তীরবর্তি এলাকার মানুষ ভাঙ্গন আতংকে রয়েছেন, দ্রুত বাৃধ মেরামতের দাবী জানিয়েছেন।

জানা গেছে, সদরের রাজাপুর, নাছির মাঝি, তুলাতলী, বোরহানউদ্দিনের হাকিমুদ্দিন, মির্জাকালু, তজুমদ্দিনের চর জদিরউদ্দিন, সোনাপুর, চর মোজাম্মেল, মনপুরার কলাতরীর চর, চরফ্যাশনের ঢালচর, কুকরী-মুকরী, চর পাতিলা, লালমোহনের চর কচুয়াখালীসহ বেশ কিছু দুর্গম জনপদ পানিতে প্লাবিত হয়েছে এতে পানি বন্দি হয়েছে পড়েছে মানুষ। অনেকের মাছের ঘের, ফসলি জমি ও বসতভীটার ক্ষতি গ্রস্থ হয়েছে। এছাড়া সদর উপজেলার রামদাসপুর এলাকার ৯নং রূপাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সম্পূর্ণ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।





পানি উন্নয়নের হিসাবে বুধবার মেঘনার পানি ১১৫ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়ে যা, বিগত কয়েক বছরের রেকর্ড। যে কারনে ঝুকিতে পড়েছে বাধ।

তবে ঝুকিপূর্ন এলাকায় দ্রুত বাধ মেরামতের কাজ চলছে বলে জানিয়েছে ভোলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. হাসানুজ্জামান। তিনি বলেন, যেসব পয়েন্ট ঝুকিতে আছে আছে ওই সব পয়েন্টে পরিদর্শন করে পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তরা দ্রুত কাজ করা হচ্ছে।

এদিকে ভোলা-২ আসনের সংসদ সদস্য আলী আজম মুকুল দৌলতখানে দুর্গত এলাকা পরিদর্শন করে হাজিপুর চরবাসীর জন্য বৃহস্পতিবার সকালে এক টন চিরা, প্রয়োজনীয় পরিমান গুড়, মোম বাতি, দিয়াশলাই ও অন্যান্য গৃহসামগ্রী পাঠিয়েছেন। অপর দিকে ভোলার লালমোহন ও তজুমদ্দিনে জোয়ারের পানির প্রভাবে ক্ষতিগ্রস্ত বেড়িবাঁধ পরিদর্শন করেছেন ভোলা-৩ আসনের এমপি নূরুন্নবী চৌধুরী শাওন। এসময় এসমপি শাওন দ্রুত ক্ষতিগ্রস্ত বেড়িবাঁধ মেরামতের জন্য পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেন।

এএম/এসআর


« PreviousNext »



সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
Editor : Iqbal Sobhan Chowdhury
Published by the Editor on behalf of the Observer Ltd. from Globe Printers, 24/A, New Eskaton Road, Ramna, Dhaka.
Editorial, News and Commercial Offices : Aziz Bhaban (2nd floor), 93, Motijheel C/A, Dhaka-1000. Phone :9586651-58. Fax: 9586659-60; Online: 9513959 & 01552319639; Advertisemnet: 9513663
E-mail: [email protected], [email protected], [email protected], [email protected],   [ABOUT US]     [CONTACT US]   [AD RATE]   Developed & Maintenance by i2soft