For English Version
মঙ্গলবার, ১১ আগস্ট, ২০২০
হোম অনলাইন স্পেশাল

ঘুষ দিয়েও ৪ বছরে বিদ্যুৎ সংযোগ পায়নি ২৭ পরিবার

Published : Wednesday, 29 July, 2020 at 4:10 PM Count : 191
মো. আসাদুজ্জামান সুমন

ময়মনসিংহের ভালুকায় নির্মাণাধীন পল্লী বিদ্যুতের একটি লাইন থেকেই বিদ্যুৎ দেয়ার নাম করে দালাল চক্র ২৭টি পরিবারের নিকট থেকে প্রায় সাড়ে ৩ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। 

কিন্তু ৪ বছরেও বিদ্যুৎ সংযোগ পায়নি কোন পরিবার। ঘটনাটি উপজেলার তামাট পশ্চিম পাড়া এলাকায়।

সরেজমিনে গিয়ে ভূক্তভোগী পরিবারগুলোর সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, মাস্টার প্ল্যানের আওতায় ময়মনসিংহ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ ভালুকা উপজেলার কাচিনা ইউনিয়নের তামাট পশ্চিম পাড়া এলাকায় বিদ্যুতায়নের কাজ চলছে। যার লট নম্বর- ১৭,২৯৮। নজরুল ইসলাম নামে এক ঠিকাদার কাজটি করছেন। খুঁটি পুতে বেশির ভাগ অংশে তার লাগানো হলেও গত ৪ বছরে সংযোগ পায়নি ২৭টি পরিবার। 

অভিযোগ রয়েছে, স্থানীয় নাজমুল ও জসিম উদ্দিন নামে দুই দালালের কাছে মিটার প্রতি ১২ থেকে ১৬ হাজার টাকা করে গত ৪ বছরে প্রায় সাড়ে ৩ লাখ টাকা তুলে দেয়া হয়েছে। কিন্তু তারা এখনো বিদ্যুৎ পায়নি। অভিযুক্ত জসিম উদ্দিন টাকা আত্মসাত করে বর্তমানে সৌদি আরব অবস্থান করছেন।

গ্রাহক মজনু মিয়া জানান, একটি মিটারের জন্য তিনি জসিম উদ্দিনকে ১৬ হাজার টাকা দিয়েছেন ৪ বছর আগে। কিন্তু এখনো সংযোগ পাননি।

একই পাড়ার হাফিজ উদ্দিনও ১৬ হাজার টাকা দিয়েছেন জসিমকে। তাছাড়া, নুরুল ইসলাম, মফিজ, মইজুদ্দিন, সিরাজ মিয়া, হাাফজ উদ্দিন, হানিফ, রুকন, রতন মিয়া, হানি, বাছেদ, কোরবান, তইমুদ্দিন, আতা ও সবুর মিয়া দালাল জসিম উদ্দিনকে ১৬ হাজার টাকা করে দিয়েছেন। ১২ হাজার টাকা দিয়েছেন মেহেদী নামের এক গ্রাহক।

অপরদিকে, একই পাড়ার হযরত আলীর ছেলে দালাল নাজমুলের কাছে রফিক ১৬ হাজার, রুহুল, মোতালেব, জাহাঙ্গীর ও জয়নাল ১২ হাজার করে, ছালাম ৭ হাজার, সালাম ও সুলেমন ১১ হাজার করে,
ফারুক ১০ হাজার ৮শ, মাসুদ ৫ হাজার ও কাশেম ১০ হাজার টাকা দিয়েছেন।

ভূক্তভোগী গ্রাহকরা জানান, কয়েক লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়ে দালাল জসিম উদ্দিন বর্তমানে চাকরি নিয়ে সৌদি আরব অবস্থান করছেন। 

এদিকে, অপর দালাল নাজমুল আরও টাকা দাবি করছেন। টাকা না দিলে কাউকে সংযোগ দেয়া
হবে না বলে হুমকী দিয়ে আসছেন।

এদিকে, বিদ্যুতের খুঁটি স্থাপন করলেও দালাল নাজমুলের বাঁধার কারণে খুঁটিতে তার লাগাতে না দেয়ায় তার বাড়ির পেছনে ৩ বিধবা নারী মৃত আশরাফুল আলমের স্ত্রী মর্জিনা খাতুন, মৃত আব্বাস উদ্দিনের স্ত্রী মর্জিনা খাতুন ওরফে মহুয়া ও মৃত আব্দুস সামাদের স্ত্রী রোকেয়া খাতুন সংযোগ না পাওয়ার আশঙ্কা করছেন। 

ভূক্তভোগী গ্রাহকরা অতি দ্রুত তাদের বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়ার জন্য ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি কামনা
করছেন।

অভিযুক্ত নাজমুল টাকা নেয়ার কথা স্বীকার করে বলেন, 'তিনি টাকা কালেকশন করে সব টাকা জসিম উদ্দিনকে দিয়ে দিয়েছেন। জসিম উদ্দিন এখন সৌদি আরব থাকায় সংযোগ পেতে দেরি হচ্ছে।'

অভিযুক্ত জসিম উদ্দিনের ছেলে সাগর সংবাদকমীদের বলেন, 'এখানকার দু’টি লট থেকে ঠিকাদার নজরুল ইসলামের সহকারী জালাল ও লিটন ৩ লক্ষাধিক টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। কিন্তু রহস্যজনক কারণে সংযোগের কাজ শেষ করেননি।'

অভিযুক্ত জালাল উদ্দিন টাকা নেয়ার বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, 'টাকার বিষয়টি জসিম ও ঠিকাদার নজরুল ভাই ভালো বলতে পারবেন। দেড় বছর আগে একটি খুঁটিতে বোতল ট্রান্সফরমার বসানো হলেও স্থানীয় নাজমুল নামে এক দালালের বাঁধার কারণে গ্রাহকরা সংযোগ পাচ্ছেনা। তবে আমরা দু’একদিনে মধ্যে এলাকায় গিয়ে সমস্যার সমাধনের চেষ্টা করবো।'

তিনি আরও বলেন, 'সিডিউল খরচ ছাড়াও অফিসের আরও কিছু খবচ আছে। যেমন মিটার বের করতে গেলে লেবার খবর দিতে হয়। যদিও লেবাররা ওই অফিসেরই। তারপরও গত কয়েকদিন আগে কয়েকটি মিটার বের করতে গিয়ে লেবারদের দুই হাজার টাকা দিতে হয়েছে। তাছাড়া গাড়ি ভাড়াসহ আরও অনেক খরচ রয়েছে।





ঠিকাদার নজরুল ইসলাম বলেন, দুটি খুঁটিতে বাঁধার কারণে কাজটি শেষ করা সম্ভব হয়নি। তবে দু’একদিনের মধ্যেই এলাকায় গিয়ে সম্যস্যা সমাধানের চেষ্টা করবো।

টাকার বিষয়ে তিনি বলেন, 'জালাল ও লিটন হয়তো গাড়ি ভাড়া ও লেবার খরচ নিয়েছেন।

মযমনসিংহ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর সহকারী প্রকৌশলী (প্রকল্প বিভাগ) আরিফ হোসাইন বলেন, 'বিষয়টি আমার জানা ছিল না। লোক পাঠিয়ে খোঁজ নিয়ে দেখছি। অতি দ্রুত যেন গ্রাহকরা বিদ্যুৎ সংযোগ পান সে ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।'

-এমএ


« PreviousNext »



সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
Editor : Iqbal Sobhan Chowdhury
Published by the Editor on behalf of the Observer Ltd. from Globe Printers, 24/A, New Eskaton Road, Ramna, Dhaka.
Editorial, News and Commercial Offices : Aziz Bhaban (2nd floor), 93, Motijheel C/A, Dhaka-1000. Phone :9586651-58. Fax: 9586659-60; Online: 9513959 & 01552319639; Advertisemnet: 9513663
E-mail: [email protected], [email protected], [email protected], [email protected],   [ABOUT US]     [CONTACT US]   [AD RATE]   Developed & Maintenance by i2soft