For English Version
শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০
হোম সারাদেশ

সড়ক বন্ধে ভোগান্তিতে পদ্মা সেতু রেল সংযোগ প্রকল্পের সরবরাহকারীরা

Published : Thursday, 9 July, 2020 at 8:45 PM Count : 112

নির্মাণ কাজের উপকরণ পরিবহনে ব্যবহৃত রাস্তা বন্ধে বিপাকে পদ্মা সেতু রেল সংযোগ প্রকল্পের (পিবিআরএলপি) স্থানীয় সরবরাহকারী ও উপঠিকাদাররা।

জানা গেছে, পিবিআরএলপি’র সড়কের এক অংশ সিএইচ ২৫ (কুচিমোড়া) থেকে শুরু হয়ে সিএইচ৮১ (ভাঙ্গা) পর্যন্ত এবং এটি এন৮ হাইওয়েতে গিয়ে মিলেছে। পিবিআরএলপি’র নির্মাণ কাজে ব্যবহৃত কংক্রিট, স্টিল বার, সাব-গ্রেড ফিলার, বক্স গ্রিডার সহ অন্যান্য সকল ধরনের উপকরণ ও যন্ত্রপাতি এই এন৮ মহাসড়ক দিয়েই পরিবহন করা হয়।
    
গত ১১ জুন থেকে এন৮ হাইওয়ে কর্তৃপক্ষ প্রধান সড়ক ও যান চলাচলে উল্লেখিত সড়কের মধ্যে সংযোগ পথ বন্ধ করে দেয়। ফলে, প্রধান সড়ক দিয়ে ভারি যানবাহন চলাচল সম্পূর্ণ বন্ধ রয়েছে এবং নির্মাণকাজের জন্য উপকরণ পরিবহনের যানবাহনগুলো নির্মাণকাজ প্রকল্প এলাকায় যেতে পারছে না।

অন্যদিকে, লাগোয়া সড়ক দিয়ে নির্মাণ প্রকল্পে পৌঁছানো সম্ভব হলেও এ সড়ক দিয়ে ভারি পণ্যবাহী যানবাহন চলাচলে অনুমোদন নেই। ফলে, পিবিআরএলপি’র নির্মাণ কাজে ব্যবহৃত উপকরণ পরিবহনের কাজে নিয়োজিত যানবাহনগুলো নির্মাণ প্রকল্পে যেতে পারছে না, এ কারণে সিএইচ২৫-সিএইচ৮১ (প্রায় ৫৬ কি.মি. দৈর্ঘ্য) সেকশনের নির্মাণ কাজ পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যাওয়ার উপক্রম।

এ কারণে, ৩৬ জন স্থানীয় সরবরাহকারী এবং উপঠিকাদাররা তাদের হাজার হাজার কর্মী নিয়ে বিপাকে রয়েছেন। বর্তমানের কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে এ অচলাবস্থা তাদের আরও ঝুঁকির মধ্যে ফেলে দিয়েছে।

উল্লেখ্য, এ সমস্যার সমাধানে সংশ্লিষ্ট পক্ষগুলোর মধ্যে একটি সমন্বয় সভা আহ্বান করা হয়েছিল, যেখানে পিবিআরপিএল’র ঠিকাদাররা সম্মত হন, তারা পর্যাপ্ত ট্র্যাফিক ব্যবস্থাপনা কর্মী নিযুক্ত করবেন, সড়ক সুরক্ষা সুবিধা প্রদান করবেন এবং তাদের ট্রাক যদি এন৮ সড়ক ক্ষতিগ্রস্ত করে, তবে তারা তা মেরামতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

এর পরেও এন৮ সড়ক পিবিআরপিএল’র নির্মাণ সামগ্রী বহনকারী ট্রাকগুলোর জন্য এখনও বন্ধ রয়েছে।

সিএসএস সামরিক তত্ত্বাবধান, এন৮ মহাসড়ক কর্তৃপক্ষ, বাংলাদেশ রেলওয়ে এবং সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের মহাসড়ক ব্যবস্থাপনা বিভাগ এ বিষয়ে বেশ কয়েকবার সংলাপ করলেও এর মাধ্যমে এখন পর্যন্ত এ বিষয়ে কোনো সমাধান হয়নি। আর এ কারণে, পদ্মা সেতু রেল সংযোগ প্রকল্প বন্ধ হয়ে যাওয়ার উপক্রম এবং ব্যাপক আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে বলে ভুক্তভোগীরা জানিয়েছেন।




 
জানা যায়, বাংলাদেশ নির্মাণাধীন প্রকল্পগুলোর মধ্যে পিবিআরএলপি অন্যতম এবং এ প্রকল্পের মাধ্যমে বাংলাদেশের অর্থনীতি ১.৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধির সম্ভাবনার কথা বলা হয়েছে। এ কারণে নির্দিষ্ট সময়ে প্রকল্প বাস্তবায়ন সম্পন্ন করতে, কোভিড-১৯  এর প্রাদুর্ভাবের সঙ্কটকালীন সময়েও এ প্রকল্পের ঠিকাদার চায়না রেলওয়ে গ্রুপ লিমিটেড (সিআরইসি) প্রকল্পের নির্মাণ কাজ স্থগিত করেনি। পিবিআরএলপি’র নির্মাণ কাজ যাতে বাধাগ্রস্ত না হয় এটা নিশ্চিত করতে সিআরইসি নিজস্ব ব্যয়ে বৈশ্বিক মহামারি প্রতিরোধে নানা ধরণের পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে; যার মধ্যে রয়েছে: শ্রমিকদের জন্য বিশাল জায়গাজুড়ে স্বতন্ত্র থাকার জায়গা নির্মাণ, বিনামূল্যে অতিমারি প্রতিরোধে সুরক্ষা সরঞ্জাম বিতরণ এবং থাকা-খাওয়ার সুব্যবস্থা করা।

এসআর


« PreviousNext »



সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
Editor : Iqbal Sobhan Chowdhury
Published by the Editor on behalf of the Observer Ltd. from Globe Printers, 24/A, New Eskaton Road, Ramna, Dhaka.
Editorial, News and Commercial Offices : Aziz Bhaban (2nd floor), 93, Motijheel C/A, Dhaka-1000. Phone :9586651-58. Fax: 9586659-60; Online: 9513959 & 01552319639; Advertisemnet: 9513663
E-mail: [email protected], [email protected], [email protected], [email protected],   [ABOUT US]     [CONTACT US]   [AD RATE]   Developed & Maintenance by i2soft