For English Version
বুধবার, ২৯ জানুয়ারি, ২০২০
হোম সারাদেশ

সেতু আছে সংযোগ সড়ক নেই

Published : Saturday, 7 December, 2019 at 12:39 PM Count : 83

সিরাজগঞ্জের কামারখন্দ উপজেলার ভদ্রঘাট ইউনিয়নের গাড়াবাড়ি এলাকায় ছোট ফুলজোড় নদীর ওপর নির্মাণ করা হয়েছে একটি সেতু। দুই পাশে সংযোগ সড়ক না থাকায় এলাকাবাসীর কোনো কাজেই আসছে না সেতুটি। উল্টো এটি এখন এলাকাবাসীর গলার কাঁটা হয়ে দাঁড়িয়েছে। 

সেতুটি নির্মাণের পর নানা অজুহাতে দীর্ঘ সময়েও সংযোগ সড়ক তৈরি করেনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। এ কারণে ১৫ গ্রামের প্রায় ২৫ হাজার মানুষের যাতায়াতে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। তবে সংশ্লিষ্টরা বলছেন, বর্ষার জন্য কাজ করা সম্ভব হয়নি এখন সংযোগ সড়ক নির্মান করে দেয়া হবে। স্থানীয়রা সেতুটিতে দ্রুত সংযোগ সড়ক নির্মানের দাবী জানিয়েছেন।

গাড়াবাড়ি গ্রামের কৃষক মজিবুর রহমান বলেন, সেতু নির্মানের পরে দীর্ঘ সময় পার হলেও সংযোগ সড়ক নির্মান করা হয়নি। যার কারনে সেতুটি ব্যবহার করা যাচ্ছে না। এতে করে আমাদের কৃষিপণ্য পরিবহন এবং স্বাভাবিক চলাচলও কঠিন হয়ে পড়েছে।
  
বড়হর গ্রামের মঈনুল হক বলেন, দীর্ঘ দিন হয় শুধু সেতু নির্মান করে রেখেছে কর্তৃপক্ষ সংযোগ সড়ক না থাকায় এলাকাবাসীর যাতায়াতে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। সেদিকে কারো নজর নেই। তিনি  দ্রুত সংযোগ সড়ক নির্মানের দাবী জানান।

সূত্র জানায়, কামারখন্দ উপজেলার গাড়াবাড়ি হাটখোলা ও নলকা-দশসিকা সড়কের পাশে অবস্থিত গাড়াবাড়ি-বড়হর সড়কে চলতি বছরের মে মাসে ৩০ লাখ টাকা ব্যয়ে ৪০ ফুট দৈর্ঘের সেতুটি নির্মাণ করে দুর্যোগ ত্রান ব্যবস্থাপনা মন্ত্রনালয়। কিন্তু দীর্ঘদিন ধরে এর সংযোগ সড়ক তৈরি না করায় সেতুটি ব্যবহার করতে পারছে না এই এলাকার হাজার হাজার মানুষ। সংযোগ সড়ক নির্মান না থাকায় সেতুটি ব্যবহার উপযোগী না হওয়ায় এলাকার ৪টি প্রাইমারি স্কুল, ১টি কলেজ, ১টি মাদরাসা, ২টি হাইস্কুলের প্রায় ৩ হাজার শিক্ষার্থীকে ঝুঁকি নিয়ে নৌকায় নদী পার হয়ে চলাচল করতে হচ্ছে। পাশাপাশি কৃষিপণ্য পরিবহনেরও ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে কৃষকদের।
 
সংযোগ সড়ক না থাকায় জনভোগান্তির কথা জানিয়ে এ বিষয়ে ভদ্রঘাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হক জানান, সেতুটি ইউনিয়ন পরিষদ থেকে নির্মাণ করা হয়নি এবং এ বিষয়ে আমাকে কিছু জানানোও হয়নি। কজেই এ বিষয়ে আমি কিছু বলতে পারব না। তবে তিনি জনভোগান্তি দুর করতে দ্রুত সংযোগ সড়ক নির্মানের দাবী জানান।

সেতুটি নির্মাণের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান রাজশাহীর মেসার্স নির্জন এন্টার প্রাইজের মালিক ঠিকাদার মিলন রহমান বলেন, এলাকাবাসী মাটি না দেয়ায় বর্ষার আগে কাজটি শেষ করা সম্ভব হয়নি। বর্ষার পানি সরে গেছে এখন সংযোগ সড়কটি নির্মাণ করা হবে।





কামারখন্দ উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) আয়শা সিদ্দিকা জানান, সংযোগ সড়ক নির্মান সহ আনুসঙ্গিক কাজ শেষ না হওয়ায় ওই ঠিকাদারের কিছু বিল আটকে দেয়া হয়েছে। বর্ষার পানি সরে গেলে তারা সংযোগ সড়ক নির্মান সহ আনুসঙ্গিক কাজটি করে দেবে বলে জানিয়েছেন। তাই কাজ শেষ হওয়ার পর বাকি বিল পরিশোধ করা হবে।

কামারখন্দ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম জানান, বর্ষার কারণে সময়মতো কাজটি করা সম্ভব হয়নি। তবে বর্ষার পানি নেমে গেছে এখন ঠিকাদারকে বলে দ্রুত সংযোগ সড়কটি নির্মাণ করা হবে। 

এ ব্যাপারে কামারখন্দ উপজেলা চেয়ারম্যান এস এম শহিদুল্লাহ সবুজ জানান, আমি একাধিকবার সেতুটি দেখেছি। সংযোগ সড়ক না থাকায় সেতুটি ব্যবহার করতে পারছেন না সাধারন মানুষ। এতে দুর্ভোগ বেড়েছে। তিনি আরো জানান, ওখানে বর্ষার পানি থাকায় কাজটি করা সম্ভব হয়নি বলে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান জানিয়েছিলো। এখন পানি সরে গেছে। আমি ঠিকাদারকে সেতুতে দ্রুত সংযোগ সড়ক নির্মাণের তাগিদ দিয়েছি। আশা করছি সংযোগ সড়ক দ্রুত নির্মান হবে এবং জনভোগান্তি দুর হবে।

এবি/এসআর


« PreviousNext »



সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
Editor : Iqbal Sobhan Chowdhury
Published by the Editor on behalf of the Observer Ltd. from Globe Printers, 24/A, New Eskaton Road, Ramna, Dhaka.
Editorial, News and Commercial Offices : Aziz Bhaban (2nd floor), 93, Motijheel C/A, Dhaka-1000. Phone :9586651-58. Fax: 9586659-60, Advertisemnet: 9513663
E-mail: [email protected], [email protected], [email protected], [email protected],   [ABOUT US]     [CONTACT US]   [AD RATE]   Developed & Maintenance by i2soft