For English Version
রবিবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০
হোম সারাদেশ

উলিপুরে ৩০ হাজার মানুষ পানি বন্দি

Published : Saturday, 13 July, 2019 at 10:03 PM Count : 231

তিস্তা, ধরলা ও ব্রহ্মপূত্র নদের পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় উলিপুর উপজেলার ৩০ হাজার মানুষ পানি বন্দি হয়ে পড়েছে। নদী তীরবর্তি ও নদী বিচ্ছিন্ন উপজেলার ৮টি ইউনিয়নের অর্ধশতাধিক চর ও দ্বীপচরের প্রায় ৫০টি গ্রামের পানিবন্দি মানুষ মানবেতর জীবনযাপন করছেন। পানিবন্দি অনেকে পার্শ্ববর্তি উচু জায়গায় আশ্রয় নিলেও গবাদি পশু নিয়ে বিপাকে পড়েছেন। বিদ্যালয়ে বন্যার পানি উঠায় এসব এলাকার ৪০টি প্রাথমিক বিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।
 
কুড়িগ্রাম পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) কন্ট্রোলরুম সূত্রে জানা গেছে, শনিবার সন্ধা সাড়ে ৬টা পর্যন্ত ধরলা নদীর পানি বিপদ সিমার ৬২ সেঃ মিটার, ব্রহ্মপুত্র নদীর পানি চিলমারী পয়েন্টে ৪৯ সেঃ মিটার ও তিস্তা নদীর পানি ১৬ সেঃ মিটার বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় উপজেলার বন্যা পরিস্থিতির অবনতি ঘটছে। ধরলা ও ব্রহ্মপূত্র নদের পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় নদী তীরবর্তি হাতিয়া ইউনিয়নের অনন্তপুর, গুজিমারি গ্রাম, হাতিয়া ভবেশ, কামারটারী, হাতিয়া গ্রাম, বাবুর চর, চর কদমতলা, সাহেবের আলগা ইউনিয়নের সুখের চর, জাহাজের আলগা, গেন্দার আলগা, বেগমগঞ্জ ইউনিয়নের রামখানা চর দুর্গাপুর, দঃ গুজিমারী, কাজিয়ার চর, বুড়াবুড়ি ইউনিয়নের জলাংগের চর, চর মোহাম্মদ পুর ও তিস্তা নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় থেতরাই ইউনিয়নের হোকডাঙ্গা গ্রাম, ভারতপাড়া, দালালিপাড়া, মাঝিপাড়া, বজরা ইউনিয়নের ৯নং চর বজরা, সাতালস্কর, পূর্ব বজরা, কালপানি বজরা, বগলাকুড়া, খামার দামারহাট, দলদলিয়া ইউনিয়নের চর কর্পূরা, চর রতিদেব, চর মহাদেব, রামনিয়াসা, গুনাইগাছ ইউনিয়নের সন্তোষ অবিরাম, টিটমা, সুকদেবকুন্ড, রাজবল্লভ, মহিদেব, রামধন, নাগড়াকুড়া, কাজিরচকসহ অর্ধশতাধিক গ্রামের রাস্তা-ঘাট, শাক-সবজির ক্ষেত, পাটক্ষেত, আমন বীজতলা পানিতে নিমজ্জিত হয়ে পড়েছে।
 
উপজেলা প্রাথমিক অফিসার মোজাম্মেল হক শাহ জানান, উপজেলার প্রায় ৪০টি বিদ্যালয় স্কুল মাঠ ও রুমে পানি উঠায় বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

হাতিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আবুল হোসেন জানান, পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় বন্যা পরিস্থিতি মোকাবেলায় সার্বিক প্রস্তুতি নেয়া আছে।





উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আব্দুল কাদের জানান, এখন পর্যন্ত ১০ মেঃ টন চাল, ২৫ হাজার টাকা ও ৩শ প্যাকেট শুকনা খাবার বরাদ্দ পাওয়া গেছে। আরও বরাদ্দ চেয়ে জেলা প্রশাসনকে চিঠি দেয়া হয়েছে।

জেএএস/এসআর


« PreviousNext »



সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
Editor : Iqbal Sobhan Chowdhury
Published by the Editor on behalf of the Observer Ltd. from Globe Printers, 24/A, New Eskaton Road, Ramna, Dhaka.
Editorial, News and Commercial Offices : Aziz Bhaban (2nd floor), 93, Motijheel C/A, Dhaka-1000. Phone :9586651-58. Fax: 9586659-60; Online: 9513959 & 01552319639; Advertisemnet: 9513663
E-mail: [email protected], [email protected], [email protected], [email protected],   [ABOUT US]     [CONTACT US]   [AD RATE]   Developed & Maintenance by i2soft