For English Version
বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪
হোম

পানিতে ভাসছে গ্রামের পর গ্রাম

Published : Wednesday, 19 June, 2024 at 12:39 PM Count : 423

উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ী ঢলে সুনামগঞ্জেশান্তিগঞ্জ উপজেলায় দ্রুতগতিতে বাড়ছে পানি৷ বন্যা পরিস্থিতির চরম অবনতি হওয়ায় নতুন করে পানিতে ভাসছে গ্রামের পর গ্রাম। দেখা দিয়েছে বড় ধরনের বন্যার আশঙ্কা। 

একের পর এক দুর্যোগ দিশেহারা করে দিয়েছে হাওর পাড়ের বাসিন্দাদের। বসতবাড়িতে পানি উঠে চরম বিপর্যয় দেখা দিয়েছে। 

পাহাড়ি ঢলের সাথে সমানতালে ভারী বর্ষণ অব্যাহত থাকায় পানি হু হু করে বাড়ছে। ফলে নিম্নাঞ্চল ইতিমধ্যেই প্লাবিত হয়েছে। বুধবার সকাল পর্যন্ত বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়ে উপজেলার বিভিন্ন গ্রাম নতুন করে প্লাবিত হয়েছে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, রাস্তাঘাট ডুবে যাওয়ায় বিচ্ছিন্ন হয়েছে যোগাযোগ ব্যবস্থা। নিরাপদ আশ্রয়ের আশায় ছুটছেন বানভাসীরা৷ ধান, গবাদি পশু যেন গলার কাটা হয়ে দাঁড়িয়েছে বন্যার্তদের। উপজেলার বেশ ক'টি ইউনিয়নে পানি বেড়ে গিয়ে উপজেলা সদরের সাথে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে।

উপজেলার বাসিন্দারা জানান, অতিবৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলের পানি দ্রুতগতিতে লোকালয়ে ঢুকছে। এতে উপজেলার সবকটি ইউনিয়ন প্লাবিত হয়েছে। রাস্তাঘাট ও বাড়ি-ঘরে পানি উঠে আতঙ্কের মাঝে রয়েছি।
পানিবন্দি একাধিক ব্যক্তি জানান, বসতঘরে পানি উঠে গেছে। জরুরি কাজ থাকা সত্ত্বেও কোথাও বের হওয়া যাচ্ছে না। রাস্তাঘাট তলিয়ে যাওয়ায় নৌকা দিয়ে পার হতে হচ্ছে। পরিস্থিতি খুব খারাপ। যেভাবে পানি বাড়ছে আল্লাহ ছাড়া এই দুর্যোগ থেকে রক্ষা করার কেউ নাই।

আব্দুল কাহার নামের একজন বলেন, শান্তিগঞ্জের বিভিন্ন এলাকার বাড়ি-ঘর ও রাস্তাঘাট বন্যায় প্লাবিত। পানিবন্দি মানুষ ডুবে যাওয়া কাঁচা বাড়ি-ঘর ও গৃহপালিত পশু নিয়ে বিপাকে পড়েছেন। বন্যায় পুকুরের মাছ ঘর-বাড়ি সব ভাসিয়ে নিয়ে গেছে। অনেক গ্রামের ঘর-বাড়ি পানিতে ডুবে আছে।

উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান প্রভাষক নূর হোসেন এই দুর্যোগ মুহুর্তে সবাইকে সতর্ক থাকার পাশাপাশি যেকোনো প্রয়োজনে যোগাযোগ করার আহ্বান জানিয়েছেন। 
এদিকে, বন্যা পরিস্থিতি মোকাবেলায় সকলকে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রয়োজনীয় সাবধানতা অবলম্বন ও সতর্ক অবস্থানে থাকার আহ্বান জানিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সুকান্ত সাহা।

তিনি বলেন, সার্বক্ষণিক বন্যা পরিস্থিতির খবরাখবর রাখছি। উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে শুকনো খাবার ও ত্রাণের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। প্রত্যেক ইউনিয়নের চেয়ারম্যানকে বলা হয়েছে বন্যার তথ্য দেয়ার জন্য। আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত আছে, যাদের বাড়ি-ঘর পানিতে ডুবেছে তাদেরকে দ্রুত আশ্রয়কেন্দ্রে যেতে বলা হয়েছে। 

-এসএইচ/এমএ

« PreviousNext »



সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
Editor : Iqbal Sobhan Chowdhury
Published by the Editor on behalf of the Observer Ltd. from Globe Printers, 24/A, New Eskaton Road, Ramna, Dhaka.
Editorial, News and Commercial Offices : Aziz Bhaban (2nd floor), 93, Motijheel C/A, Dhaka-1000. Phone : PABX- 0241053001-08; Online: 41053014; Advertisemnet: 41053012
E-mail: info$dailyobserverbd.com, mailobserverbd$gmail.com, news$dailyobserverbd.com, advertisement$dailyobserverbd.com,   [ABOUT US]     [CONTACT US]   [AD RATE]   Developed & Maintenance by i2soft