For English Version
সোমবার, ২৬ আগস্ট, ২০১৯
হোম জাতীয়

ঈদ মোবারক

Published : Monday, 12 August, 2019 at 5:47 AM Count : 59

ঈদ মোবারক। আজ পবিত্র ঈদ-উল-আজহা। সারাদেশের মুসলিম সম্প্রদায় ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য ও যথাযথ মর্যাদায় তাদের অন্যতম প্রধান এই ধর্মীয় উৎসব উদযাপন করবে। মহান আল্লাহর সন্তুষ্টির উদ্দেশ্যে পশু কোরবানির করবে দেশের মুসলিম সম্প্রদায়।

আজ থেকে চার হাজার বছর আগে মহান আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভের জন্য হযরত ইবরাহিম (আ.) তাঁর ছেলে হযরত ইসমাইল (আ.) কে কোরবানি করার উদ্যোগ নেন। কিন্তু আল্লাহর কৃপায় ও অপার কুদরতে হযরত ইসমাইল (আ.) এর পরিবর্তে একটি দুম্বা কোরবানি হয়ে যায়। হযরত ইবরাহিম (আ.) এর সেই ত্যাগের মহিমার কথা স্মরণ করে মুসলিম সম্প্রদায় জিলহজ মাসের ১০ তারিখে পশু কোরবানি করে থাকে। উদ্দেশ্য আল্লাহর অনুগ্রহ লাভ করা। এই ঈদের পর দুই দিন পর্যন্ত (১১ ও ১২ জিলহজ) পশু কোরবানি করার ধর্মীয় বিধান রয়েছে।

ইতিমধ্যে মুসলমানরা কোরবানির প্রস্তুতি প্রায় সম্পন্ন করেছে। কেউ নিজের পালিত পশু কোরবানি করবে। আবার কেউ কেউ পশু কিনে কোরবানি করবে।

ঈদের দিন সকালেই মুসল্লিরা ঈদগাহ বা মসজিদে যাবে ঈদ-উল-আজহার দুই রাকাত ওয়াজিব নামাজ আদায় করতে। নামাজ আদায়ের পর খতিব বা ইমাম খুত্বা পাঠ করবেন। তুলে ধরবেন কোরবানির তাৎপর্য। কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে ধনী-গরিব নির্বিশেষে একত্রে ঈদগাহ ও মসজিদে নামাজ আদায় করবে। কোলাকুলির মাধ্যমে শুভেচ্ছা বিনিময় করবে।

ঈদের নামাজ শেষে বিশেষ মোনাজাত হবে। মোনাজাতে মুসলিম উম্মার শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করা হবে। দেশের সকল মানুষের শান্তি, রোগমুক্ত সমাজ, দেশের উন্নয়ন, ভ্রাতৃত্ববোধ অক্ষুণ্ন রাখার জন্য দোয়া করা হবে। প্রিয়জনদের মধ্যে যারা পরপারে চলে গেছে তাদের আত্মার শান্তি কামনা করে অশ্রুসিক্ত হয়ে মোনাজাতে শামিল হবে সবাই।

এরপর হযরত ইবরাহিম (আ.)-এর মহান আত্মত্যাগের আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে মুসলিম সম্প্রদায় পশু কোরবানি করবে।

পবিত্র ঈদ-উল-আজহা উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, বিরোধীদলীয় নেতা ও রাজনৈতিক ব্যক্তিরা বাণী দিয়েছেন। রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী ঈদের দিন বঙ্গভবন ও গণভবনে সর্বস্তরের মানুষের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিয়ময় করবেন।

প্রতি বছরের মতো এবারও রাজধানীর সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণে জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে। এখানে রাষ্ট্রপতি, প্রধান বিচারপতি, স্পিকার, মন্ত্রী, সংসদ সদস্য, রাষ্ট্রদূত, রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বসহ সর্বস্তরের মানুষ ঈদের নামাজ আদায় করবেন। ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন ইতিমধ্যে নামাজের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে। সোমবার সকাল ৮টায় প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে। এখানে ৯০ হাজার মুসল্লি একসঙ্গে নামাজ আদায় করতে পারবে বলে জানা গেছে। নারীদের জন্য পৃথক নামাজের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

বায়তুল মোকাররমেও প্রতি বছরের মতো কয়েকটি জামাত অনুষ্ঠিত হবে। রাজধানীর অন্যান্য ঈদগাহ ময়দান ও মসজিদে ঈদের নামাজের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

রাজধানী ঢাকা ছাড়াও বড় বড় শহর ও গ্রামের ঈদগাহ ময়দান নামাজের জন্য সাজানো হয়েছে। কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়া ও দিনাজপুরের গৌড়-এ শহীদ বড় ময়দানে দেশের সবচেয়ে বড় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। সেখানেও নামাজের জন্য প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।

-এমএ


« PreviousNext »



সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
Editor : Iqbal Sobhan Chowdhury
Published by the Editor on behalf of the Observer Ltd. from Globe Printers, 24/A, New Eskaton Road, Ramna, Dhaka.
Editorial, News and Commercial Offices : Aziz Bhaban (2nd floor), 93, Motijheel C/A, Dhaka-1000. Phone :9586651-58. Fax: 9586659-60, Advertisemnet: 9513663
E-mail: [email protected], [email protected], [email protected], [email protected],   [ABOUT US]     [CONTACT US]   [AD RATE]   Developed & Maintenance by i2soft