For English Version
সোমবার, ২৬ আগস্ট, ২০১৯
হোম অর্থ ও বাণিজ্য

ঝিনাইদহে পশুহাট গুলো জমে উঠেছে

Published : Friday, 9 August, 2019 at 3:03 PM Count : 90

ঝিনাইদহে কোরবানীর ঈদকে সামনে রেখে জেলার পশুহাট গুলো জমে উঠেছে। জেলার ৬টি উপজেলায় এবছর ২৭ টি পশুহাটে গরু ছাগল বিক্রি হচ্ছে। এদিকে গরু বহনের গাড়িতে বা হাটগুলোতে চাঁদবাজি রোধে পুলিশ সুপার কঠোর হুশিয়ারি করেছেন।

খোঁজনিয়ে জানা গেছে, সদরে ৭টি, শৈলকুপায় ৮টি, হরিণাকুন্ডেু ৩টি, কালীগঞ্জে ৩টি, কোটচাঁদপুরে ২টি ও মহেশপুরে ৪টি গরুর হাট বসবে।  জেলার ৬টি উপজেলায় ২’হাজার ১১৫টি খামার রয়েছে। যেখানে গরুর ফার্ম ৬৪০টি, ছাগল ভোড়ার ফার্ম ৪৫০টি, লেয়ার মুরগি ৪১১৭টি। আর এসকল ফার্মে প্রায় ১০’হাজার বেকার যুবকদেও কর্মসংস্থান সৃষ্ঠি করেছে।  তবে জেলা প্রাণী সম্পদ অফিসের দেওয়া তথ্য মতে, এ বছর জেলার ৬ উপজেলায় রেজিস্ট্রেশন খামারির সংখ্যা ২’শ ৩৭ টি। এখানে দেশীয়, পাবনাই ষাড়, নেপালী ষাড়, সিন্ধিসহ বিভিন্ন জাতের ৫৫ হাজার ৮ শ’ ৯৬ টি গরু প্রস্তুত করা হয়েছে।

গত মাস দেড়েক আগে থেকেই খামারিরা পালিত গরু, ছাগলের বিশেষ ভাবে যতœ নিতে শুরু করেন। পালিত পশুটি বাজারের সর্বোচ্চ দামে বিক্রি করতে ব্যস্ততার কমতি ছিলনা খামারীদের। নিজেদের উৎপাদিত সবুজ ঘাস, বিচালীসহ চিটাগুড় ও নানা ধরনের দানাদার খাবারে মোটাতাজা করেছেন। এছাড়া মুগরির খামারিরা লাভের আশায় বিশেষ ভাবে যত্ন  নিয়ে চলেছেন।

হরিণাকুন্ডেুর গরু ব্যবসায়ী শামছুল মন্ডল জানান কুলবাড়ীয়ার গরু ঢাকা, সিলেট কুমিল্লা, চট্রগ্রামসহ বিভিন্ন জেলায় এবং নিজ উপজেলারও চাহিদা মেটাবে। তবে দেশের বাইরে থেকে গরু না আসলে এবার লাভের মুখ দেখবেন বলে জানালেন তিনি।  

হাট ইজারাদাররা জানান, ঈদকে সামনে রেখে হাটের ক্রেতা-বিক্রেতা উভয় যেন নিরাপদে কেনাকাটা করতে পারেন, সেজন্য নিজের উদ্যোগে বাড়তি নিরাপদের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এখনও পর্যন্ত ক্রেতা বিক্রেতা উভয়ই সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

এ ব্যাপারে জেলা প্রানী সম্পদ কর্মকর্তা ডা: হাফিজুর রহমান জানান, চাহিদার ওপর ভিত্তি করে কোরবানি ঈদের কিছুদিন আগ থেকে গরুকে উন্নত খাদ্য ও ব্যবস্থাপনা দিয়ে মোটাতাজাকরণ লাভজনক।

ঝিনাইদহের পুলিশ সুপার হাসানুজ্জামান জানান, জেলায় ঝিনাইদহ জেলায় এবার ২৭টি গরুর হাট বসবে। কোথাও কোন চাঁদাবাজি হলে বা চেষ্ঠা করলে কোন প্রকার ছাড় দেয়া হবেনা বলে হুশিয়ারি করেন। গরুর গাড়ীতে ও হাটে চাঁদাবাজিরোধ, জাল নোট সনাক্তকরনে মেশিন বসানো, অতিরিক্ত টোল আদায় না করা, এক হাটের পশু অন্য হাটে নেওয়া বিষয়ে কঠোর হুশিয়ারি দেওয়া হয়েছে। ইজারাদের নিরাপত্তা ও জাল নোট সনাক্তকরন মেশিন বসানো হয়েছে। তাছাড়া প্রতিটি হাটে কঠোর রিনাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে বলে তিনি আরো জানান।

জেইউআর/এএস


« PreviousNext »



সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
Editor : Iqbal Sobhan Chowdhury
Published by the Editor on behalf of the Observer Ltd. from Globe Printers, 24/A, New Eskaton Road, Ramna, Dhaka.
Editorial, News and Commercial Offices : Aziz Bhaban (2nd floor), 93, Motijheel C/A, Dhaka-1000. Phone :9586651-58. Fax: 9586659-60, Advertisemnet: 9513663
E-mail: [email protected], [email protected], [email protected], [email protected],   [ABOUT US]     [CONTACT US]   [AD RATE]   Developed & Maintenance by i2soft