For English Version
সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
হোম Don't Miss

পানিতেই রোগমুক্তি!

Published : Tuesday, 9 July, 2019 at 12:08 PM Count : 325

কবিরাজের পানি পড়া, গাছের ছালবাকল, শিকড়, কুঞ্চির রস রোগমুক্তির মহাওষুধ হিসেবে ব্যবহারের কথা আমরা অনেকেই শুনেছি। তবে এবার এই মহাওষুধের তালিকায় নতুন করে যুক্ত হয়েছে পানি। ঘটনাটি ঝিনাইদহের।

সদর উপজেলার মধুহাটি ইউনিয়নের বাজার গোপালপুরের পূর্বপাড়ার খালের নির্জন মাঠের একটি টিউবওয়েলের পানি মহাওষুধ হিসেবে পান করছে হাজার হাজার রোগাক্রান্ত লোকজন। আর এ টিউবওয়েলের পানি নিতেই প্রতিদিন উৎসুক লোকজনের ভিড় জমছে। ভোররাত থেকে সকাল সাড়ে ১০টা পর্যন্ত স্থানীয় লোকজন পানি নিতে ভিড় জমালেও বর্তমানে দূর দুরান্ত থেকে হাজার হাজার লোকজনের ভিড় জমছে সারাদিন। সাধারণ মানুষ বলছে গুজব ও ভূয়া। 

এদিকে, সিভিল সার্জন বলেছেন উৎসাহে এবং গুজবে পানি পান করছেন সবাই। 

কেউ একজন বলেছেন, এই টিউবওয়েলের পানি পান করলে সব রোগ সেরে যায়। তিনি আবার শুনেছেন অন্য আরেকজনের কাছে। সেই অন্যজন আবার শুনেছেন অন্য আরেকজনের কাছে। তবে ঠিক কে প্রথম বলেছেন, আর কার সব রোগ সেরেছে, সেই প্রশ্ন কেউ করছেন না। বরং শত শত মানুষ ছুটছেন নিজের রোগ সারাতে। গড়িয়ে পড়ছেন ওই টিউবওয়েলের পানির নিচে। হুড়োহুড়ি লাগিয়ে দিচ্ছেন, কে কার আগে পানি নিতে পারে।

গ্রামবাসী জানান, গত রোজার পূর্বে সদর উপজেলার মধুহাটি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ফারুক হোসেন জুয়েল হোসেন সরকারি অর্থায়নে নিজের এলাকায় মাঠের কৃষকদের পানির জন্য একটি টিউবওয়েল স্থাপন করেন। গত দিন ২০ আগে লোকমুখে আলোচনা আসতে থাকে কে যেন স্বপ্ন দেখেছে এই টিউবওয়েলের পানি পান করলে রোগব্যাধি দূর হচ্ছে। এরপর থেকেই ১/২ করে লোকজন বাড়তে থাকে। তবে বর্তমানে হাজার হাজার লোকজনের ভিড় জমছে। এই নলকূপটির পানি নেওয়ার জন্য ঝিনাইদহ জেলা ও আশপাশের এলাকা থেকে লোকজন আসছেন। বাত-ব্যথা, টিউমার, জন্ডিস, ক্যান্সার প্রভৃতি রোগীরা আসছেন সুস্থতার জন্য। এতে বাজার গোপালপুরে কাক ডাকা ভোর থেকে মধ্যরাত অবধি জটলা দেখা দিচ্ছে। লোকজন যাতে নির্বিঘ্নে পানি নিতে পারে এ জন্য জুয়েল চেয়ারম্যান নলকূপে মোটর লাগিয়েছেন। পানি নেওয়ার জন্য শতাধিক স্বেচ্ছাসেবকও নিয়োগ দিয়েছেন তিনি। তারা আরো বলছেন এটা গুজব। টিউবওয়েলের পানিতে রোগ সারবে, এটা ভ্রান্ত ধারণা। যারা ওই টিউবওয়েলের পানি নিতে এসেছেন, তারা কেউ বলতে পারছেন না, কারও রোগ ভালো হয়েছে কি না?

মঙ্গলবার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, মাঠের মধ্যে একটি মেহগনি বাগান। সেখানে কয়েক শত মানুষ অপেক্ষা করছে, যাদের বেশির ভাগই নারী। কিছু বৃদ্ধ আছেন, তবে কিশোর ও যুবকের সংখ্যা কম। বেশির ভাগ মানুষ এসেছে কলস আর বোতল নিয়ে। একদল মানুষ পাইপের মাধ্যমে সবাইকে পানি দিচ্ছে। মাঝে মধ্যে পাত্রে দিচ্ছে, আবার ছিটিয়ে সবাইকে ভিজিয়ে দিচ্ছে।

কোটচাঁদপুর উপজেলার তালসার গ্রাম থেকে পানি নিতে আসা বজলুর রহমান বলেন, তারা আত্মীয়ের মাধ্যমে জেনেছেন, একজন স্বপ্নে দেখেছে টিউবওয়েলের পানি পান করলে রোগ ভালো হচ্ছে। বিভিন্ন জায়গা থেকে লোকজন আসছে টিউবওয়েলের পানি নিতে। তাই আমরা দেখার জন্য এসেছি। সেই সঙ্গে পানিও নিয়ে যাচ্ছি।

হরিণাকুন্ডু থেকে পানি নিতে আশা ইতি বলেন, এ পানি পান করলে রোগমুক্তি হবে। এ কথা এখন সবার মুখে মুখে শুনছি। অনেক দিন ধরে বাতের ব্যাথায় ভুগছি। কতো ডাক্তার দেখালাম কিছুই হলো না। তাই এখানে পানি নিতে এসেছি।

শ্যামনগর গ্রামের একজন চাকরিজীবী বলেন, এটা গুজব সেটি সচেতন মানুষ বুঝতে পেরেছে। পানিতে রোগ সারলে তাহলে ডাক্তার আর ওষুধের দরকার পড়ত না। 

হাটগোপালপুর গ্রামের নজির উদ্দিন বলেন, তার পিতা দীর্ঘদিন প্যারালাইজড হয়ে বিছানায় পড়ে আছে। নলকূপের পানি পান করে রোগমুক্তি হবে এ কথা শুনে তিনি পানি নিতে এসেছেন।

ডাকবাংলা এলাকার রহিমা বেগম এসেছেন পেটের ব্যথা নিয়ে। পানি পানের পর গোসলও করেছেন। এরপরও তার রোগ ভালো হয়নি।

ঝিনাইদহের সিভিল সার্জন ডা. সেলিনা বেগম বলেন, টিউবওয়েলের পানি পান করলে রোগ ভালো হবে চিকিৎসা শাস্ত্রে এমন কোন কথা নেই। যারা পানি পান করছে উৎসাহে এবং গুজবে। তারপরও ওই নলকূপ ও আশপাশের কয়েকটি নলকূপের পানি পরীক্ষার জন্য জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল বিভাগে পাঠিয়েছি। আমরা দেখতে চাই ওই নলকূপের পানির সঙ্গে অন্য নলকূপের পানির কোনো মিল-অমিল আছে কি না?

ঝিনাইদহ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাম্মী ইসলাম বলেন, ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখে পরবর্তী পদক্ষেপ নেবেন। এই পানি পান করলে রোগ ভালো হচ্ছে, এটা কোথা থেকে ছড়াল, কারা কী উদ্দেশ্যে নিয়ে ছড়াল, সেটাও তদন্ত করা হবে। 
পানি নিতে এসে কেউ কেউ আবার ভোগান্তির স্বীকার হচ্ছেন। অনেকে পানি সংগ্রহ করতে এসে দাঁড়াতে হচ্ছে দীর্ঘ লাইনে। 

-জেইউআর/এমএ


« PreviousNext »



সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
Editor : Iqbal Sobhan Chowdhury
Published by the Editor on behalf of the Observer Ltd. from Globe Printers, 24/A, New Eskaton Road, Ramna, Dhaka.
Editorial, News and Commercial Offices : Aziz Bhaban (2nd floor), 93, Motijheel C/A, Dhaka-1000. Phone :9586651-58. Fax: 9586659-60, Advertisemnet: 9513663
E-mail: [email protected], [email protected], [email protected], [email protected],   [ABOUT US]     [CONTACT US]   [AD RATE]   Developed & Maintenance by i2soft