For English Version
সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
হোম রাজনীতি

ঝটিকা মিছিলেই সীমাবদ্ধ বামদের হরতাল

Published : Sunday, 7 July, 2019 at 3:59 PM Count : 82
অবজারভার প্রতিবেদক

কয়েক দফা ঝটিকা মিছিলেই সীমাবদ্ধ ছিল গ্যাসের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে ডাকা দেশব্যাপী বাম গণতান্ত্রিক জোটের হরতাল। রাজধানীসহ সারাদেশে যানবাহন চলাচল ও সকল কর্মকাণ্ড অন্যান্য দিনের মত স্বাভাবিক গতিতেই চলেছে।

রোববার সকাল থেকে রাজধানীর মতিঝিল, পল্টন, শাহবাগ, ফার্মগেট, কাওরান বাজার, আসাদগেট, ধানমন্ডি, সাইন্সল্যাব, নিউ মার্কেট, এলিফ্যান্ট রোড, আজিমপুর, মালিবাগ, খিলগাঁও, বাসাবো এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, সকাল থেকেই ওইসব রাস্তায় বাস, সিএনজি, মাইক্রোবাস, প্রাইভেটকারসহ সকল ধরনের যানবাহন চলেছে। এছাড়াও ওইসব এলাকায় অন্যান্য দিনের মতো যানজট লেগেই আছে।

অন্যান্য দিনের মত আজও এসব এলাকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানসহ সকল ধরনের বিপণীবিতান ও দোকানপাট খোলা ছিল। অফিসগামী লোকজনকে প্রতিদিনের মতো অফিসে যেতে দেখা গেছে। স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের তাদের নিজ নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যেতে দেখা গেছে।

এছাড়া, রাজধানীর বাস টার্মিনালগুলো থেকে দুরপাল্লার গাড়ি ছেড়ে গেছে। যথাসময়ে কমলাপুর রেল স্টেশন থেকে ট্রেনও ছেড়ে গেছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

এমন স্বাভাবিক গতির বাইরে সকালে পল্টন এলাকায় হরতালকে সফল করতে ঝটিকা মিছিল করেছে বাম গণতান্ত্রিক জোট। রাজধানীর পাশাপাশি দেশের বিভিন্ন এলাকায় এমন ঝটিকা মিছিলের খবর জানিয়েছেন  আমাদের প্রতিনিধিরা। এছাড়া সকাল ৯টা থেকে শাহবাগ মোড়ে রাস্তা অবরোধ করে সমাবেশ করেছে হরতাল সমর্থকরা। এ সময় বিকল্প রাস্তায় গাড়ি চলাচল করতে দেখা গেছে।

সারাদেশে হরতালের সমর্থনে কোনো ধরনের পিকেটিং বা ভাংচুরের খবর পাওয়া যায়নি।

পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী রোববার সকাল ৬টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত দেশব্যাপী হরতাল ডাকা হয়েছে। এ হরতালে সমর্থন জানিয়েছে বিএনপি, গণফোরামসহ কয়েকটি সংগঠন। এছাড়া হরতালে সমর্থন দেওয়া অন্য দলগুলোর মধ্যে রয়েছে, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ, গণতান্ত্রিক বাম মোর্চা, ন্যাপ, পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন।

তবে বাম গণতান্ত্রিক জোটের নেতাকর্মী ছাড়া রাজপথে, মিছিলে বিএনপি বা অন্য কোন দলের নেতাকর্মীদের দেখা যায়নি।



তবে বাম জোটের নেতারা জানিয়েছিলেন, হরতাল সফল করতে রাজধানীর কয়েকটি স্থানে পিকেটিংয়ের প্রস্তুতি রয়েছে তাদের। এর মধ্যে পুরানা পল্টন, জাতীয় প্রেস ক্লাব, মতিঝিল, শাহবাগ, মিরপুর ১ ও ১০, সূত্রাপূর, বাহাদুর শাহ পার্ক, আজিমপুর বাসস্ট্যান্ড, মোহাম্মদপুর, উত্তরা রয়েছে। এসব জায়গায় জোটের নেতাকর্মীরা উপস্থিত থেকে পিকেটিং করবেন। কিন্তু প্রকৃত অর্থে এসব এলাকায় হরতালের তেমন কোনো প্রভাব পরেনি।

জোটের সমন্বয়ক ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সাধারণ সম্পাদক মোশাররফ হোসেন নান্নু গণমাধ্যমকে বলেন, ‘হরতালে জনগণ রাজপথে অবস্থান নিয়ে তার প্রমাণ দেবে। জনগণ কোনো ধরনের উসকানিতে পা না দিয়ে শান্তিপূর্ণভাবে জনস্বার্থের হরতালের সমর্থনে রাজপথে নেমে আসবে।’

এদিকে, ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) উপকমিশনার (ডিসি) মাসুদুর রহমান বলেন, বাম জোটের হরতালে কোনো ধরনের নাশকতা, অগ্নিসংযোগ, ভাঙচুর, মানুষের জানমাল রক্ষাসহ যেকোনো ধরনের বলপ্রয়োগ করে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটানোর চেষ্টা মোকাবিলায় ডিএমপি প্রস্তুত।

-এমএ


« PreviousNext »



সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
Editor : Iqbal Sobhan Chowdhury
Published by the Editor on behalf of the Observer Ltd. from Globe Printers, 24/A, New Eskaton Road, Ramna, Dhaka.
Editorial, News and Commercial Offices : Aziz Bhaban (2nd floor), 93, Motijheel C/A, Dhaka-1000. Phone :9586651-58. Fax: 9586659-60, Advertisemnet: 9513663
E-mail: [email protected], [email protected], [email protected], [email protected],   [ABOUT US]     [CONTACT US]   [AD RATE]   Developed & Maintenance by i2soft