For English Version
শুক্রবার, ২৩ আগস্ট, ২০১৯
হোম সারাদেশ

সাতক্ষীরায় চুরি থেকে রক্ষা পাচ্ছে না পুলিশ ম্যাজিস্ট্রেট ও বেঞ্চ সহকারি!

Published : Saturday, 8 June, 2019 at 5:54 PM Count : 289

সাতক্ষীরা শহরের পলাশপোল সরদার পাড়া এলাকার দিনদুপুরে চুরির ঘটনায় অস্থির হয়ে উঠেছে এলাকাবাসী। প্রায় এক মাসের ব্যবধানে অন্তত ৬ বাড়িতে চোরেরা ঘরের হ্যাজবোল্ড ভেঙ্গে নগদ টাকা, ল্যাপটপ ও স্বর্ণ চুরি করেছে। এসব চুরির হাত থেকে পুলিশের সার্জেন্ট ও চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বেঞ্চ সহকারির কেউই রেহাই পায়নি। তবে ভুক্তোভোগিরা মাত্র একটি ঘটনায় মামলা করার উদ্যোগ নিলেও অন্যরা এড়িয়ে গেছে নানা কারণে।
 
প্রাপ্ত তথ্যে জানা গেছে, পলাশপোল সরদার পাড়ার বাসিন্দা রকিব মোল্যা। নিজ বাড়িতেই বসবাস করেন। মাস খানেক আগে দিন দুপুরে বাড়িতে না থাকার সুযোগে চোরেরা বাড়ির দুই তলার দরজার হ্যাজবোল্ড ভেঙ্গে ঘরের মধ্যে ঢুকে ৫০ হাজার টাকা নিয়ে পালিয়ে যায়। একই দিন পাশের বাড়ির মাসুদের বাড়ির ভাড়াটিয়া চায়ের দোকানীর ঘরের দরজার হ্যাজবোল্ড ভেঙ্গে চোরেরা ৪৫ হাজার টাকা নিয়ে কৌশলে পালিয়ে যায়। প্রায় একই সময়ে মাসুদের বাড়ির আরেক ভাড়াটিয়ার ঘরে দিন দুপুরে ঢুকে একটি ল্যাপটপ ও ৩০ হাজার টাকা চুরি করে নিয়ে যায়। সেখানেও ঘরের হ্যাজবোল্ড ভেঙ্গে চোরেরা নির্বিঘ্নে চুরি করে।
 
এদিকে সদ্য বিদায়ী ২২ রমজানে একই এলাকার সদরুল আলমের মেয়ের বাড়ির ভাড়াটিয়া ট্রাফিক পুলিশের সার্জেন্ট মোশাররফ হোসেনের ঘরের দরজার হ্যাজবোল্ড ভেঙ্গে ১৮ হাজার টাকা নিয়ে পালিয়ে যায় চোরেরা। চুরির সময় সার্জেন্ট মোশাররফ ও তার পরিবার কেউ বাড়িতে না থাকার সুযোগে চোরেরা দিন দুপুরে চুরি করে। তিনি পুলিশ অফিসার হলেও চোরেরা তাকে ক্ষমা করেননি।

সর্বশেষ চলতি মাসের ১ তারিখ থেকে ৫ তারিখের মধ্যে যে কোন সময় শহরের পলাশপোল সরদার পাড়ার লিপি ম্যানশন এর এ্যাড: রেশমা পারভীনের বাড়ির ভাড়া বাসিন্দা চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এর বেঞ্চ সহকারি আশরাফুল আলমের বাসার হ্যাজবোল্ড ভেঙ্গে নগত ১৮ হাজার টাকাসহ এক লাখ এক হাজার টাকার বেশি স্বর্ণের গহনা ও অন্যান্য জিনিসপত্র চুরি করে নিয়ে যায়। ঘটনার সময় ঈদের ছুটিতে থাকায় চোরেরা বুঝে শুনে সময় নিয়ে চুরি করেছে বলে আশরাফুল আলমের অভিযোগ।

তিনি বলেন, এই এলাকায় একইভাবে অনেকগুলো চুরি হয়েছে। চোরের যন্ত্রণায় অতিষ্ঠ। শহরের গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় এধরণের চুরি শহরবাসিকে রিতিমত ভাবিয়ে তুলেছেন। তিনি আরও বলেন, সাতক্ষীরা সদর থানায় একটি এজাহার জমা দিয়েছি। তবে ঘটনার পরপরই সদর থানার ওসিকে জানানোর পর এসআই কিশোর ঘটনাস্থলে এসে দেখে যান এবং চুরির বিষয়টি তিনি প্রত্যক্ষ করেন। 

আশরাফুল আলম আরও বলেন, এক মাসের কিছু বেশি সময় হবে শহরের এসপি বাংলোর পেছনে সিএন্ডএফ ব্যবসায়ী আবু মুসার বাড়ির দ্বিতীয় তলায় ভাড়া থাকেন চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোস্তফা পাভেল রায়হান। তিনি সকালে বাসা থেকে অফিসে আসেন এবং বিকালে বাসায় গিয়ে দেখেন, চোরেরা তার বাসার হ্যাজবোল্ড ভেঙ্গে চুরির চেষ্টা করেছে তবে কিছুই নিতে পারেনি। হয়তবা কেউ এসে যাওয়ার কারণে চোরেরা দ্রুত পালিয়ে যায়। এব্যাপারেও সেখানে ঘটনার পরপরই পুলিশ গেলেও কোন প্রতিকার পাননি চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট।

এসব ব্যাপারে কথা হয় পুলিশের ট্রাফিক সার্জেন্ট মোশাররফ হোসেনের সাথে। তিনি বলেন, এমনিতেই পুলিশে চাকুরি করি। তারপর আমার বাসা থেকে চুরি হয়েছে। এব্যাপারে বাড়ি ওয়ালাকে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার পরামর্শ দিয়েছিলাম বা পুলিশকে অবহিত করতে বলেছিলাম তিনি কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি। 

সার্বিক বিষয়ে সদর থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি মোস্তাফিজুর রহমান জানান, বেঞ্চ সহকারি আশরাফুল আলমের বাসায় চুরির ঘটনায় নিয়মিত মামলা হয়েছে। এছাড়াও ওই এলাকায় অন্যান্য চুরির বিষয়ে তার কাছে কোন খবর নাই। এক প্রশ্নের জবাবে ওসি বলেন, পুলিশের ট্রাফিক সার্জেন্ট মোশাররফের বাড়িতে চুরি হয়েছে আমি জানিনা বা আমাকে জানায়নি। তবে এসব এলাকায় অভিযান চলবে বলে জানান তিনি।

এমজেডআর/এসআর


« PreviousNext »



সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
Editor : Iqbal Sobhan Chowdhury
Published by the Editor on behalf of the Observer Ltd. from Globe Printers, 24/A, New Eskaton Road, Ramna, Dhaka.
Editorial, News and Commercial Offices : Aziz Bhaban (2nd floor), 93, Motijheel C/A, Dhaka-1000. Phone :9586651-58. Fax: 9586659-60, Advertisemnet: 9513663
E-mail: [email protected], [email protected], [email protected], [email protected],   [ABOUT US]     [CONTACT US]   [AD RATE]   Developed & Maintenance by i2soft