For English Version
বৃহস্পতিবার, ২৩ মে, ২০১৯
হোম সারাদেশ

আর্সেনিকের ঝুঁকি কমাতে গভীর নলকূপ স্থাপন চলছে

Published : Wednesday, 15 May, 2019 at 4:57 PM Count : 70

গোপালগঞ্জে আর্সেনিকের ঝুঁকি কমাতে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের আওতায় চলতি ২০১৮-১৯ অর্থবছরে ৩ হাজার ২৩৭ টি গভীর নলকূপ স্থাপন করা হচ্ছে। আর এই গভীর নলকূপ স্থাপনের মাধ্যমে গোপালগঞ্জের পাঁচ উপজেলায় শহর থেকে গ্রাম পর্যায়ের সাধারণ মানুষ সুপেয় পানি পানের সুযোগ পাচ্ছে। 

বসতবাড়ি থেকে শুরু করে স্কুল-কলেজ, মাদ্রাসা, মসজিদ, মন্দির, গীর্জায় এখন পাওয়া যাচ্ছে আর্সেনিকমুক্ত সুপেয় পানি। 

জেলার জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর সূত্রে জানাগেছে, চলতি অর্থ বছরে পানি সরবরাহে আর্সেনিক ঝুঁকি নিরসন প্রকল্পে ২ হাজার ১২টি গভীর নলকূপ স্থাপন করা হয়েছে। এরমধ্যে গোপালগঞ্জ সদরে ৪৬৮ টি, টুঙ্গিপাড়ায় ১শ’টি, কোটালীপাড়ায় ২৮৪ টি, কাশিয়ানীতে ৪৮৩ টি এবং মুকসুদপুরে ৬৯৭ টি। পানি সরবরাহে আর্সেনিক ঝুঁকি নিরসন প্রকল্পে গোপালগঞ্জ সদরের ১১ টি ইউনিয়নে ১৫৭ টি গভীর নলকূপ স্থাপন করা হয়েছে।

এ ছাড়াও অগ্রাধিকার মূলক গ্রামীন পানি সরবরাহ প্রকল্পে সাধারন বরাদ্ধ ও অতিরিক্ত মিলে ১ হাজার ৬৮ টি গভীর নলকূপ স্থাপন করা হয়েছে। এরমধ্যে গোপালগঞ্জ সদরে ১৭৮টি, টুঙ্গিপাড়ায় ১৭৮ টি, কোটালীপাড়ায় ১৭৮ টি, কাশিয়ানীতে ৩৫৬ টি এবং মুকসুদপুরে ১৭৮ টি। আগামী অর্থ-বছরে ৫ হাজার ৬শ’ সাব-মার্সিবল পাম্পসহ গভীর নলকূপ, ৪২ টি গ্রামীন পাইপ ওয়াটার সাপ্লাই প্রকল্প, ১০ টি সিডকো প্লান্ট, ১০ টি রিভার্স অসমোসিস প্লান্ট, আর্সেনিক আয়রন রিমোভাল প্লান্ট ২ হাজারের চাহিদা পাঠানো হয়েছে।

গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার জালালাবাদ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এম সুপারুল আলম টিকে বলেন, আমার ইউনিয়নে আরো অন্তত ২শ’ গভীর নলকূপের প্রয়োজন রয়েছে। এই ২’শ গভীর নলকূপ স্থাপন করতে পারলে আমার ইউনিয়নের কোন বাড়িতে সুপেয় পানির সমস্যা থাকবেনা। আমি আমার ইউনিয়নে ২শ’ গভীর নলকূপ স্থাপন করার দাবী করছি।

গোপালগঞ্জ সদর উপজেলা চেয়ারম্যান শেখ লুৎফার রহমান বাচ্চু বলেন, আমার উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে আমার কাছে গভীর নলকূপের আবেদন নিয়ে হাজারো লোক আসে। কিন্তু যথেষ্ট বরাদ্ধ না থাকায় তাদের দিতে পারিনা। আমার উপজেলায় আরো তিন হাজার গভীর নলকূপের চাহিদা রয়েছে। আমি এই তিন হাজার গভীর নলকূপ বরাদ্ধ পেলে সদর উপজেলায় কোন পরিবারে আর্সেনিকমুক্ত পানি পানের সমস্যা থাকবেনা।

গোপালগঞ্জ জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী দীপক চন্দ্র তালুকদার বলেন, গোপালগঞ্জের পাঁচ উপজেলার ৬৮ টি ইউনিয়নে সুপেয় পানি পানের সুবিধার জন্য চলতি ২০১৮-১৯ অর্থ-বছরে স্থাপন করা হচ্ছে ৩ হাজার ২৩৭ টি গভীর নলকূপ। আর এই গভীর নলকূপ স্থাপনের মাধ্যমে গোপালগঞ্জের পাঁচ উপজেলার শহর থেকে গ্রাম পর্যায়ের সাধারণ মানুষ সুপেয় পানি পানের সুযোগ পাচ্ছে। 

এমএইচএম/এইচএস


« PreviousNext »



সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
Editor : Iqbal Sobhan Chowdhury
Published by the Editor on behalf of the Observer Ltd. from Globe Printers, 24/A, New Eskaton Road, Ramna, Dhaka.
Editorial, News and Commercial Offices : Aziz Bhaban (2nd floor), 93, Motijheel C/A, Dhaka-1000. Phone :9586651-58. Fax: 9586659-60, Advertisemnet: 9513663
E-mail: [email protected], [email protected], [email protected], [email protected],   [ABOUT US]     [CONTACT US]   [AD RATE]   Developed & Maintenance by i2soft