For English Version
বৃহস্পতিবার, ২৩ মে, ২০১৯
হোম বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

গুগল ডুডলে মা দিবস

Published : Sunday, 12 May, 2019 at 2:37 PM Count : 122


আজ মা দিবস। এ উপলক্ষে বিশেষ ডুডল তৈরি করেছে বিশ্বের জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন গুগল। গুগল তাদের পেজে একটি অ্যানিমেটেড ডুডল প্রকাশ করেছে। গুগলের এই ডুডলটিতে সন্তানের প্রতি মায়ের ভালোবাসা প্রকাশ পেয়েছে।

শনিবার দিবাগত রাত ১২টার পরেই সার্চ ইঞ্জিনটি এই ডুডলটি চালু করেছে। যা রোববার সারা দিন থাকবে। কয়েক বছর ধরেই মা দিবসে এমন বিশেষ ডুডল প্রচার করে আসছে গুগল।

গুগলের ডুডলে একটি হাঁস ও তার ছয় রঙের বাচ্চার মজার একটি অ্যানিমেশন তুলে ধরা হয়েছে। গুগলের সাইটে প্রবেশ করলে দেখা যায়, বড় একটি হাঁস জেগে বসে থেকে তার ঘুমন্ত বাচ্চাদের পাহারা দিচ্ছে। বাচ্চাগুলো মায়ের আশপাশে গুটিশুটি হয়ে ঘুমিয়ে আছে। একটি আদুরে ছানাকে তো মায়ের পিঠে উঠে ঘুমাতে দেখা গেল!


ছবিটির নিচে রয়েছে তিনটি প্লে বাটন। প্রতিটিতে রয়েছে মা হাঁস ও তার ছানাদের দৈনন্দিন নানা কর্মকাণ্ডের দৃশ্য। প্রথম বাটনটিতে ক্লিক করলে দেখা যায়, ছোট ছোট বাচ্চাগুলোকে হাঁটতে শেখাচ্ছে মা। ছ’টি বাচ্চা সারি বেঁধে মায়ের পেছন পেছন হাঁটতে গিয়ে বার বার আছাড় খেয়ে পড়ে যাচ্ছে, দৌঁড়ানোর চেষ্টা করতে গিয়ে তাল সামলাতে না পেরে মায়ের গায়ে ধাক্কা খাচ্ছে। তখন মা হাঁসটি তাদের দেখিয়ে দিচ্ছে কীভাবে পিঠটা উঁচু করতে হবে, কীভাবে পা নাড়াতে হবে। মায়ের কাছে দেখে দেখে ছানাগুলো ঠিক করে হাঁটা শিখে যাচ্ছে।


দ্বিতীয় প্লে বাটনে ক্লিক করলে ছানাসহ মা হাসকে সাঁতার কাটতে দেখা যায়। দেখা যায়, পানিতে ছুটোছুটি করে দুষ্টুমিরত বাচ্চাগুলোতে মা হাঁসটি ধৈর্য নিয়ে ঠিকভাবে সাঁতার শেখাচ্ছে। তখন বাচ্চাগুলো খুব মনোযোগ দিয়ে একে একে মায়ের সাঁতার শেখার সব কৌশল বুঝে নেয়ার চেষ্টা করছে।


তৃতীয় প্লে বাটনের দৃশ্যে আবারও ফুটে উঠেছে সন্তানদের প্রতি মা হাঁসের মনোযোগ আর যত্ন। ছ’টি ছানা বড় হচ্ছে। তাদের কৌতুহল আর দুষ্টুমির শেষ নেই। সেই দুষ্টুমি আর কৌতুহলের বশে মাকে ফেলে রেখেই এদিক ওদিক ছুটে যাচ্ছে তারা। কিন্তু এমন সময় যখন হঠাৎ করে বৃষ্টি শুরু হলো, মা তার ডানা ছড়িয়ে দিলো বাচ্চাদের দিকে। ছোট ছোট হাঁসগুলো তখন বৃষ্টি থেকে বাঁচতে দৌঁড়ে চলে আসে মায়ের উষ্ণ ডানার আড়ালে। সেখানেই তাদের সবচেয়ে নিরাপদ আশ্রয়।

আধুনিক মা দিবসের প্রচলন হয় যুক্তরাষ্ট্রে। দিবসটির প্রবক্তা অ্যানা মারিয়া রিভস জার্ভিস। তার মা অ্যান মারিয়া রিভস জার্ভিস ছিলেন একজন শান্তিবাদী সমাজকর্মী। তিনি ‘মাদারস ডে ওয়ার্ক ক্লাব’ প্রতিষ্ঠা করেছিলেন।

১৯০৫ সালে অ্যান মারা যান। তার মৃত্যুর পর মেয়ে আনা মায়ের স্বপ্ন পূরণে কাজ শুরু করেন। সব মাকে শ্রদ্ধা জানাতে একটি দিবস প্রচলনের লক্ষ্যে সচেষ্ট হন তিনি।

১৯০৮ সালে পশ্চিম ভার্জিনিয়ার একটি গির্জায় আনা তার মায়ের স্মরণে অনুষ্ঠান করেন। একই বছর মার্কিন কংগ্রেস মা দিবসকে স্বীকৃতি দিয়ে সরকারি ছুটি ঘোষণার প্রস্তাব নাকচ করে। তবে তাতে দমে যাননি আনা। তিনি তার চেষ্টা অব্যাহত রাখেন। ইতিমধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যে মা দিবস পালিত হতে থাকে।

অবশেষে আনার প্রচেষ্টা সফল হয়। ১৯১৪ সালে যুক্তরাষ্ট্রের তৎকালীন প্রেসিডেন্ট উড্রো উইলসন মে মাসের দ্বিতীয় রোববারকে মা দিবস হিসেবে ঘোষণা করেন। দিনটি সরকারি ছুটি ঘোষিত হয়।

-এমএ


« PreviousNext »



সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
Editor : Iqbal Sobhan Chowdhury
Published by the Editor on behalf of the Observer Ltd. from Globe Printers, 24/A, New Eskaton Road, Ramna, Dhaka.
Editorial, News and Commercial Offices : Aziz Bhaban (2nd floor), 93, Motijheel C/A, Dhaka-1000. Phone :9586651-58. Fax: 9586659-60, Advertisemnet: 9513663
E-mail: [email protected], [email protected], [email protected], [email protected],   [ABOUT US]     [CONTACT US]   [AD RATE]   Developed & Maintenance by i2soft