For English Version
বৃহস্পতিবার, ২২ আগস্ট, ২০১৯
হোম স্বাস্থ্য

চিকিৎসক সংকটে বানারীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স

Published : Friday, 10 May, 2019 at 9:38 PM Count : 154

বরিশালের বানারীপাড়ায় ৫০ শয্যা বিশিষ্ট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসক সংকট প্রকট আকার ধারণ করায় প্রধানমন্ত্রীর ঘরে ঘরে স্বাস্থ্য সেবা পৌঁছে দেওয়ার অঙ্গীকার বাস্তবায়িত হচ্ছেনা। চিকিৎসক সংকটের কারণে এ উপজেলায় স্বাস্থ্য সেবা মুখ থুবরে পড়েছে। মাত্র ৪ জন চিকিৎসক দিয়ে বানারীপাড়া উপজেলার প্রায় ২ লাখ অধিবাসীর  চিকিৎসা সেবা দেওয়া হচ্ছে।

বর্তমানে এ হাসপাতালে দায়িত্বরত চিকিৎসকরা হলেন, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. এস এম কবির হাসান, ডা. আজিজুল হক, ডা. মেহেদী হাসান, ডা. জাহিদুজ্জামান ও ডা. মীরা মজিদ। এদের মধ্যে ডা. মেহেদী হাসান ঢাকায় ইনসার্ভিস ট্রেনিংয়ে ও ডা. মীরা মজিদ ছুঁটিতে রয়েছেন। এ্যানেসথেসিয়া (অজ্ঞান) ডা. আজিজুল হক ভারপ্রাপ্ত আবাসিক মেডিকেল অফিসারের দায়িত্ব পালন করছেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে দেখা যায়, কয়েক শত রোগীকে সেবা দিতে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. এস এম কবির হাসান, ডা. লুৎফুল আজিজ ও ডা. শামস ই জাহান সোনিয়া হিমশিম খাচ্ছেন। চিকিৎসক সংকটের কারণে ও রোগীর ভিড় সামলাতে চাখার ১০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালের ডা. শামস-ই জাহান সোনিয়াকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এনে রোগীদের চিকিৎসা সেবা দেওয়া হয়। ফলে চাখারে একজন চিকিৎসক ডা. উম্মে সালমাকে রোগীদের সেবা দিতে গিয়ে হিমশিম খেতে হয়। এভাবেই জোড়াতালি দিয়ে চলছে এ উপজেলার চিকিৎসা সেবা। গত শনিবার দিন-রাত ২৪ ঘন্টা ডা. জাহিদুজ্জামানের ডিউটি থাকায় রোববার তিনি বিশ্রামে ছিলেন। পালা করে একেক জন চিকিৎসককে ২৪ ঘন্টা ডিউটি পালন করতে হয়। পরের দিন ওই চিকিৎসককে একদিন বিশ্রামে থাকতে হয়। ফলে প্রতিদিন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তাসহ ৩ জন চিকিৎসক চিকিৎসা সেবা দিতে পারেন। এখানে ২-৩ জন চিকিৎসকের পক্ষে প্রতিদিন আউট ডোর ও ইনডোরে ৪ শতাধিক রোগীকে সেবা দেওয়া দুস্কর হয়ে দাঁড়িয়েছে।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, ৫০ শয্যার এ হাসপাতালে আগের ৩১ শয্যার জনবল দিয়েই কার্যক্রম চলছে। ২৮ চিকিৎসক পদের এ হাসপাতালে মাত্র চার জন চিকিৎসক রয়েছেন। ১০ জন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক, আবাসিক মেডিকেল অফিসার ও ডেন্টাল সার্জনসহ ২৪টি চিকৎসক পদ শুণ্য রয়েছে। উপজেলার ৮ ইউনিয়নের মধ্যে ৭ ইউনিয়নেই স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রে চিকিৎসক পদ শুণ্য রয়েছে। একমাত্র উদয়কাঠি ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রে ডা. জাহিদুজ্জামানের পদায়ন থাকলেও চিকিৎসক সংকটের কারণে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দায়িত্ব পালন করতে হচ্ছে। ফলে উপজেলার ৮ ইউনিয়নেই স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রে চিকিৎসক পদ শুন্য থাকায় চিকিৎসা সেবা বঞ্চিত হচ্ছেন প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলের সাধারণ রোগীরা। মাতৃ প্রসূতি সেবায় জাতীয় পুরুস্কারপ্রাপ্ত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গাইনী বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক পদ শুন্য থাকায় উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. এস এম কবির হোসেনকে সিজারিয়ানসহ সব ধরনের অপারেশন করতে হয়।

এদিকে, চাখার ১০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালেও চিকিৎসকসহ জনবল সংকট থাকায় সেখানেও যথাযথ চিকিৎসা সেবা পাচ্ছেন না রোগীরা। ওই হাসপাতালের ডা. উম্মে সালমা ও ডা শামস ই জাহান সোনিয়াকেও চিকিৎসক সংকটের কারণে প্রায়ই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এসে চিকিৎসা সেবা দিতে হয়। ফলে প্রায়শই চাখার ১০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালটি চিকিৎসক শুণ্য থাকে। ফলে নিরুপায় রোগীদের সেখানে ফার্মাসিষ্ট হাসনাইন চিকিৎসা সেবা দিয়ে থাকেন।

এ প্রসঙ্গে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. এস এম কবির হাসান জানান, উপজেলায় স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করতে অনতিবিলম্বে শুণ্য পদ পূরণসহ পর্যাপ্ত চিকিৎসক নিয়োগ দেওয়া প্রয়োজন। তবে নতুন চিকিৎসক নিয়োগের মধ্য দিয়ে দেশ জুড়ে হাসপাতালের এ সমস্যা ও সংকট দূরীভূত হবে বলে তিনি জানান।

-আইএইচএন/এমএ


« PreviousNext »



সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
Editor : Iqbal Sobhan Chowdhury
Published by the Editor on behalf of the Observer Ltd. from Globe Printers, 24/A, New Eskaton Road, Ramna, Dhaka.
Editorial, News and Commercial Offices : Aziz Bhaban (2nd floor), 93, Motijheel C/A, Dhaka-1000. Phone :9586651-58. Fax: 9586659-60, Advertisemnet: 9513663
E-mail: [email protected], [email protected], [email protected], [email protected],   [ABOUT US]     [CONTACT US]   [AD RATE]   Developed & Maintenance by i2soft